WhatsApp Hack: এক মিস কলেই হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করছে Pegasus স্পাইওয়্যার

whatsapp-pegasus-spyware-targeted-indian-users-to-hack-account-how-to-keep-safe
Pegasus স্পাইওয়্যার কী জানুন

WhatsApp (হোয়াটসঅ্যাপ) ব্যবহারে ইউজারের ডেটা সংক্রান্ত গোপনীয়তা বজায় থাকবে কিনা, সেই নিয়ে প্রশ্ন আকছার ওঠে! কিন্তু জানেন কি, এই মেসেজিং প্ল্যাটফর্মটির মাথা ব্যথার অন্যতম কারণ Pegasus (পেগাসাস) নামের একটি পুরনো স্পাইওয়্যার। ২০১৯ সালে এই স্পাইওয়্যার থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ইউজারদের আশঙ্কার কথা প্রথম সামনে আসে। ওই সময় অভিযোগ ছিল, স্পাইওয়্যারটি ব্যবহার করে ভারতসহ বিশ্বের ২০টি দেশের উর্ধ্বতন সরকারী কর্মকর্তা, সাংবাদিক, নেতা এবং আইনজীবীদের ওপর অবৈধভাবে স্নুপিং বা নজরদারি চালানো হচ্ছে। এমনকি গোটা ঘটনা সামনে আসার পর, ইজরায়েলীয় স্পাইওয়্যার নির্মাতা (NSO) এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করেছিল হোয়াটসঅ্যাপ। কিন্তু তখনকার মত বিষয়টি ধামাচাপা পড়লেও, এখন এই বিষয়ে ফের নতুন করে জটিলতা তৈরি হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

কী এই Pegasus (পেগাসাস) স্পাইওয়্যার?

পেগাসাস আসলে ইজরায়েল ভিত্তিক এনএসও গ্রুপের তৈরি একটি স্পাইওয়্যার, যা (Q Suite) কিউ স্যুট এবং ট্রিডেন্ট (Trident) সহ বিভিন্ন নামে পরিচিত। এটি অ্যান্ড্রয়েড বা আইওএস – উভয় ধরণের ডিভাইসেই অনুপ্রবেশ করতে পারে এবং ডিভাইস হ্যাক করতে পারে। সেক্ষেত্রে হোয়াটসঅ্যাপে স্নুপিংয়ের জন্য, পেগাসাস, VoIP (ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রোটোকল) স্ট্যাকের একটি দুর্বলতা ব্যবহার করে বলে জানা গিয়েছে। শুনলে অবাক হবেন, শুধুমাত্র একটি মিস কল পেগাসাসকে নির্দিষ্ট ডিভাইসের হোয়াটসঅ্যাপে অ্যাক্সেস পাওয়ার সুযোগ করে দেয়।

Pegasus (পেগাসাস) কী ধরণের ক্ষতি করে?

পেগাসাস স্পাইওয়্যারটি কোনো টার্গেটেড ডিভাইসে ইনস্টল হওয়ার সাথে সাথে, কন্ট্রোল সার্ভারগুলির সাথে যোগাযোগ শুরু করে যা সংক্রামিত ডিভাইস থেকে ডেটা সংগ্রহ করার জন্য যাবতীয় কমান্ড রিলে করতে পারে। এটি ডিভাইসের পাসওয়ার্ড, কন্ট্যাক্ট, মেসেজ, ক্যালেন্ডারের তথ্য চুরি করে এবং মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে ভয়েস কলের অ্যাক্সেস পেতে করতে পারে। তদ্ব্যতীত, স্পাইওয়্যারটি ফোনের ক্যামেরা এবং মাইক্রোফোন ব্যবহারের পাশাপাশি লাইভ অবস্থান ট্র্যাক করার জন্য জিপিএস ব্যবহার করতে সক্ষম।

এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, হোয়াটসঅ্যাপে পেগাসাস ব্যবহার করে ভারতে ঠিক কতজনকে হ্যাক করা হয়েছিল বা এটি এখনো কার্যকরী অবস্থায় রয়েছে কিনা – সে বিষয়ে কোনো তথ্য মেলেনি। তাছাড়া এই ধরণের সাইবার-আক্রমণ বা অবৈধ স্নুপিংয়ের পিছনে কে ছিল, সে খবরও আজও অজানা!

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.