ভারতে কমছে আইফোন বিক্রির পরিমান, জেনে নিন প্রধান চারটি কারণ

২০১৭ সালে প্রায় ৩২ লাখ আইফোন বিক্রি হয়েছিল,এবছরে তা ১৭ লাখে ঠেকেছে

ভারতে বিশ্বের জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অ্যাপল, এর আইফোনের বিক্রির পরিমান গত বছরের তুলনায় এবছরে অনেক কমেছে। এই রিপোর্ট বুঝিয়ে দেয় আইফোনের প্রতি মানুষের মনে উন্মাদনা ধীরে ধীরে ফুরিয়ে যাচ্ছে।সম্প্রতি রিসার্চ ফার্ম ‘কাউন্টারপয়েন্ট’ এক রিপোর্টে জানিয়েছে ভারতে গত বছরের তুলনায়(২০১৭) এ বছরে আইফোন বিক্রির পরিমান ৫০% কমে গেছে।যেখানে ২০১৭ সালে প্রায় ৩২ লাখ আইফোন বিক্রি হয়েছিল,এবছরে তা ১৭ লাখে ঠেকেছে।

এ বিযয়ে অ্যাপল-র সিইও টিম কুক কে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন ,ভারতের মতো একটা দেশ যেখানে বাজেট ফোনের রমরমা বাজার,সেখানে আইফোনের মূল্য তাদের নাগালের বাইরে।তারা সবরকম চেষ্টা করছে ভারতে আইফোনের দাম কমানোর জন্য।তিনি আরো বলেন ভারতে অ্যাপল ফোনের ম্যানুফ্যাকচারিং শুরু হয়ে যাওয়ায়,আশা করা যায় দাম নিয়ে সমস্যা মিটে যাবে। আজ আমরা আপনাদেরকে আইফোন বিক্রির পরিমান কমে যাওয়ার প্রধান চারটি কারণ সম্পর্কে বলবো।

মূল্য :

আমরা জানি ভারতে বেশি ১০০০০ টাকা থেকে ২০০০০ টাকার স্মার্টফোন বিক্রি হয়।কিন্তু আইফোনের মূল্য সে তুলনায় অনেক বেশি।আইফোনের কিছু( হেডফোন,চার্জার) কেনার প্রয়োজন হলে আমাদেরকে অনেক টাকা ব্যয় করতে হয়। আর এই কারণেই মানুষ আইফোনের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে।

রিটেল স্টোর ও সার্ভিস সেন্টারের অভাব :

স্যামসাং,শাওমি ইত্যাদি স্মার্টফোন ব্র্যান্ডের ভারতে অনেক নিজস্ব স্টোর আছে।কিন্তু আইফোনের হাতে গোনা কয়েকটা স্টোর ভারতে খুঁজলে পাওয়া যাবে ।তারা বেশির ভাগ পার্টনার স্টোরের মাধ্যমে স্মার্টফোন বিক্রি করে থাকে।ফলে ফোনের মূল্য তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকে না।আবার সার্ভিস সেন্টারগুলো অনেক দূরে দূরে অবস্থিত।সার্ভিস নিতে গেলে মানুষকে অনেক হয়রানির শিকার হতে হয়। এই কারণে আইফোনের প্রতি মানুষের ইচ্ছা দিন দিন কমছে।

ওয়ানপ্লাস :

বর্তমানে ফ্ল্যাগশিপ মার্কেট ওয়ানপ্লাস ময়।মূলত কম দামে প্রিমিয়াম ফিচারের ফোন লঞ্চ করে খুব কম দিনেই জনপ্রিয় হয়ে গেছে চীনের এই ব্র্যান্ডটি।এই মুহূর্তে বিশ্বে স্যামসাং ও অ্যাপল-র সবচেয়ে বড়ো প্রতিদ্বন্দ্বীর নাম ওয়ানপ্লাস।রিপোর্ট অনুযায়ী প্রতিবছর ওয়ানপ্লাসের স্মার্টফোন গতবছরের তুলনায় ২৫% গুন্ বেশি বিক্রি হচ্ছে।

ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট :

আইফোনের মূল্য বেশি হওয়ার পিছনে ভারতে ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট না থাকাকেই দায়ী করা যেতে পারে।আইফোন ভারতে তৈরী হলে দাম অনেক কমবে বলে আশা করা যায়।

পড়ুন : ফাঁস হয়েছে ৭৭ কোটির ও বেশি ই-মেল আইডি ও পাসওয়ার্ড, এই পদ্ধতিতে জেনে নিন আপনি সুরক্ষিত কিনা