উইন্ডোজ ১০ ব্যবহারকারীরা সাবধান, অজান্তেই হ্যাকার ডিলিট করতে পারে জরুরি ফাইল

windows 10 bug

যদি আপনি আপনার কম্পিউটারে উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন তাহলে আপনার জন্য বেশ চিন্তার বিষয় রয়েছে। একটি রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে, উইন্ডোজের ১০ অপারেটিং সিস্টেমে একটি বড়সড় সমস্যা রয়েছে। এই কারণে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনারা আপনাদের কম্পিউটারের উইন্ডোজ ১০-কে আপডেট করে নিন। এই সমস্যার সুবিধা নিয়ে হ্যাকাররা উইন্ডোজ ১০-র উপর কাজ করা যেকোনো কম্পিউটার কে হ্যাক করে তার ফাইল ডিলিট করতে পারে।

মোবাইল কিনতে এখানে ক্লিক করুন

• এই উইন্ডোজ ভার্সনে ছিল ১৬টি সমস্যা-

মাইক্রোসফট কিছুদিন আগেই একটি নতুন আপডেট নিয়ে এসেছিল যাতে উইন্ডোজ ১০-র ১০০টি সমস্যার সমাধান করা হয়েছিল। এরমধ্যে ১৬টি সমস্যাকে অত্যন্ত গুরুতর বলে চিহ্নিত করা হয়েছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে, এদের মধ্যে সবথেকে বড় দুটি সমস্যা ছিল মাইক্রোসফ্ট কালার ম্যানেজমেন্ট এবং উইন্ডোজ মিডিয়া ফাউন্ডেশন জড়িত। সিস্টেমে থাকা এই সমস্যাকে কাজে লাগিয়ে হ্যাকাররা যে কোন ব্যক্তির কম্পিউটারের ফাইল দেখে নিতে পারত এবং সেগুলিকে বদলেও দিতে পারত। এছাড়াও তারা নিজেদের ইচ্ছামত সিস্টেমে যে কোন ভাইরাস প্রোগ্রামকে ইনস্টল করতে পারতো।

মোবাইল কিনতে এখানে ক্লিক করুন

• ভাইরাসপূর্ণ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সমস্ত জালিয়াতি করা হয়-

এই সমস্যার কারণে হ্যাকাররা আপনার সিস্টেমে একটি নতুন উইন্ডোজ ১০ অ্যাকাউন্ট তৈরি করে। মাইক্রোসফট কালার ম্যানেজমেন্টে আসা এই সমস্যার কারণে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, এর মাধ্যমে যে কোন হ্যাকার ইন্টারনেট নির্ভর কোন অ্যাটাক ব্যবহারকারীর কম্পিউটারে করতে পারে। এবং তাকে ওই ভাইরাসপূর্ণ ওয়েবসাইট খুলতে বাধ্য করা হয়। এই ওয়েবসাইট খোলা মাত্রই ব্যবহারকারী সিস্টেমে ভাইরাস পৌঁছে যায় এবং ব্যবহারকারী সমস্ত তথ্য হ্যাকারের হাতে চলে আসে।

• ইমেইল অথবা মেসেজের মাধ্যমে পাঠানো হয় ভুয়ো লিঙ্ক-

এই ধরনের জালিয়াতির ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীকে ইমেইল অথবা মেসেজের মাধ্যমে একটি জাল লিঙ্ক পাঠানো হয়। এই লিংকে একটি ইউ আর এল দেওয়া থাকে যে ইউআরএলে ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবহারকারীকে একটি ভাইরাস পূর্ণ ওয়েবসাইটে রি-ডাইরেক্ট করা হয়। এবং যদি আপনি উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করেন তাহলে এই সমস্যা আরো বেশি পরিমাণে দেখা দেবে, কারণ এই উইন্ডোজ ভার্সনের মাইক্রোসফট কালার কারেকশনে একটি সমস্যা রয়েছে। শুধু তাই নয় যদি আপনি ওই লিংকে ক্লিক না করেন তাহলে জালিয়াতরা আপনাকে বারবার মেসেজ অথবা ইমেইল পাঠিয়ে ওই লিংকে ক্লিক করতে বাধ্য করবে।

• কিছু সমস্যা ঠিক করা হয়েছে-

কোম্পানি মঙ্গলবার একটি সিকিউরিটি প্যাচ নিয়ে এসেছে যার মাধ্যমে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, EdgeHTML, চক্র কোর এবং শেয়ার পয়েন্টের বিভিন্ন সমস্যা ঠিক করা হয়েছে। শেয়ার পয়েন্টের একটি সমস্যার কারণে জালিয়াতরা আপনার ডিভাইসের সমস্ত ফাইল অ্যাক্সেস করে নেয়।

মোবাইল কিনতে এখানে ক্লিক করুন