Apple কে কপি নয়, চার্জার না দেওয়ার ভাবনা ৬ বছর আগে থেকেই ছিল Xiaomi-র

xiaomi-did-not-copy-apple-for-not-giving-charger-in-retail-box-says-lei-jun

আমরা সবাই জানি গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে জনপ্রিয় ব্র্যান্ড Xiaomi, তার নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন Mi 11 লঞ্চ করেছে, যাতে লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন চিপসেট, উন্নত ক্যামেরাসহ একাধিক মজার ফিচার রয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি এটি বিশ্বে বাজারেও বিক্রয়ের জন্য উপলব্ধ বলেও সম্প্রতি জানা গিয়েছে। এদিকে প্রথম সেলে ফোনটি নিজের ঘরোয়া বাজারে দেদার বিক্রি হলেও, ফোনের রিটেল বক্সের সাথে চার্জিং অ্যাডাপ্টার অন্তর্ভুক্ত না থাকায় (চাইলে নেওয়া যেতে পারে) অনেকেই বলছেন, প্রিমিয়াম ডিভাইস নির্মাতা Apple-এর দেখাদেখিই Xiaomi এই ধরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কারণ গত বছর অক্টোবরে যখন Apple ঘোষণা করে যে সংস্থাটি তার নতুন iPhone 12 সিরিজের ডিভাইস বা কিছু পুরনো সিরিজের ডিভাইসের নতুন ব্যাচগুলিতে চার্জিং অ্যাডাপ্টার সরবরাহ করবেনা, সেই মুহূর্তে Xiaomi সহ অন্যান্য কিছু স্মার্টফোন ব্র্যান্ড মার্কিনি সংস্থাটিকে নিয়ে পরোক্ষভাবে বেশ উপহাস করেছিল। তার পরমুহূর্তে নিজেদের Mi 11-র রিটেল বক্সের সাথে চার্জার না দেওয়ার বিষয়টি অনেকেই অনুকরণ বলে মনে করছেন।কিন্তু, গ্রাহকদের এই ধারণাটি ভ্রান্ত বলে দাবি করেছেন শাওমির সিইও লেই জুন (Lei Jun)।

জুন, একটি লাইভ ব্রডকাস্ট চলাকালীন জানিয়েছেন যে, চার্জিং অ্যাডাপ্টার অপসারণের সিদ্ধান্তটি সম্পূর্ণ তার নিজের; সংস্থাটি কোনোভাবেই অ্যাপলের অনুকরণ করেনি। তাঁর মতে, আজ থেকে প্রায় ৬ বছর আগে এই ধরণের পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়টি তার মাথায় এসেছিল এবং তিনি, নিজের অফিসিয়াল ওয়েইবো হ্যান্ডেলে ইউজারদের মতামত জানতে চেয়ে প্রশ্নও করেছিলেন।

এই ধরণের পদক্ষেপের কারণ হিসেবে জুন যুক্তি দিয়েছেন যে, ২০২০ সালে শাওমি তার বেইজিং পার্কের কেন্দ্রে ফিরে আসে, তখন বেশ কয়েকটি চার্জারের বক্স ফেলে দিতে হয়েছিল। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই নাকি তিনি ফোনের রিটেল বক্স থেকে অ্যাডাপ্টার অপসারণ করার সিদ্ধান্ত নেন। তবে, শাওমির এই দাবির সত্যতা কতটা সে বিষয়ে আমাদের কাছে তথ্য নেই। হতে পারে ‘শাওমি, অ্যাপলের জুতোয় পা গলিয়েছে’ – এই জাতীয় চর্চা বন্ধ করার জন্য সংস্থাটি এরকম প্রচার করছে।

অনেকে এও বলছেন, সংস্থাটি এই পদক্ষেপ নিয়েছে কারণ বেশিরভাগ ক্রেতাই আলাদাভাবে চার্জার কিনে থাকেন বা অনেকের কাছেই পুরনো চার্জিং অ্যাডাপ্টার রয়েছে যার সাহায্যে নতুন ফোনটি সহজেই চার্জ করা যাবে। অর্থাৎ ফোনের সাথে চার্জার না থাকার ঘটনাটি তেমন গুরুতর কোনো বিষয় নয়। তবে গিজমোচিনা (Gizmochina) নামক পোর্টালটি এই নিয়ে একটি সমীক্ষা করেছিল বলে জানা গিয়েছে, যেখানে দেখা গেছে অধিকাংশ মানুষই চার্জারের অনুপস্থিতির ব্যাপারটি পছন্দ করছেন না। যদিও রিপোর্ট বলছে, ১লা জানুয়ারির সেলে প্রায় ২০,০০০ গ্রাহক চার্জিং অ্যাডাপ্টারের পরোয়া না করে Mi 11 ফোনটির সবুজ রঙের ভ্যারিয়েন্টটি পকেটস্থ করেছেন।