আগামী সপ্তাহে সামনে আসবে Mi 11 এবং Mi 11 Pro, থাকবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭৫ প্রসেসর

আগামী ১ ও ২ ডিসেম্বর ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হতে চলেছে Qualcomm Snapdragon Tech Summit 2020। এই অ্যানুয়াল কনফারেন্সে কোয়ালকম তার ফ্ল্যাগশীপ চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৭৫ এর ওপর থেকে পর্দা সরাবে। এখন শোনা যাচ্ছে, শাওমিও এখানে তার Mi 11 ও Mi 11 Pro ফ্ল্যাগশিপ ফোনের ঘোষনা করে দিতে পারে। যদিও Xiaomi Mi 11 লঞ্চ করার পরিকল্পনার কথা এখনো প্রকাশ করেনি।

শাওমির সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও লেই জুন এই সামিটে যে উপস্থিত থাকবেন তা উইবোতে কোয়ালকম পোস্ট করে জানিয়েছে। তারপরেই বেড়েছে জল্পনা। গত বছর স্ন্যাপড্রাগন টেক সামিটে শাওমি তার ফ্লাগশীপ ফোন Mi 10 এর ঘোষনা করেছিল। ফলে এইবছরেও টেক দুনিয়া অনুরূপ কিছু দেখার জন্য আগ্রহী হয়ে বসে আছে। Xiaomi Mi 11 ও Mi 11 Pro কোয়ালকমের লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮৭৫ চিপসেটের সাথে লঞ্চ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

পূর্বে RMX2194 মডেল নাম্বারের সাথে Xiaomi Mi 11 ফোনকে গিকবেঞ্চে দেখা গিয়েছিল। সেখানে ফোনটিকে ৬ জিবি র‌্যাম, অ্যান্ড্রয়েডের লেটেস্ট ১১ ভার্সন এবং স্ন্যাপড্রাগন ৮৭৫ চিপসেটের সাথে অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছিল। গিকবেঞ্চে Mi 11 সিঙ্গেল কোর টেস্টে ১১০৫ পয়েন্ট এবং মাল্টি কোর টেস্টে ৩৫১২ পয়েন্ট স্কোর করেছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী, ফোনটি অন্য র‌্যাম ভ্যারিয়েন্টেও উপলব্ধ হবে এবং Mi 11 সিরিজের দুটি ফোনেই একই চিপসেট ব্যবহার করা হবে।

সম্প্রতি Xiaomi Mi 11 Pro ফোনটির বেশ কিছু তথ্যও ফাঁস হয়েছিল। যেমন- শাওমি এমআই ১১ প্রো ফোনে MEMC সাপোর্ট, রিয়েল টাইম এসডিআর টু এইচডিআর এবং সুপার রিজোলিউশন ফিচার থাকবে। ফোনে হোল পাঞ্চ ও কার্ভড এজ যুক্ত কোয়াডএইচডি প্লাস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হবে। এই ফোনের ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট হবে ১২০ হার্টজ। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, Mi 10 Pro ফোনে ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছিল। যার রিফ্রেশ রেট ছিল ৯০ হার্টজ। সুতারাং এখানেও বড়সড় আপগ্রেড দেখা যাবে। শোনা যাচ্ছে, Mi 11 ফোনটিতে ১০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট থাকতে পারে। অন্যদিকে এর প্রিমিয়াম ভ্যারিয়েন্ট Mi 11 Pro, ১২০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টের সাথে আসতে পারে।