জল্পনার অবসান, ২৯ মার্চ লঞ্চ হচ্ছে Xiaomi Mi 11 Pro ও Mi 11 Ultra

xiaomi-mi-11-pro-mi-11-ultra-launch-date-officially-confirmed-march-29

শাওমি (Xiaomi) প্রতিবছরের ন্যায় এবারও বসন্তকালীন বার্ষিক সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৯ মার্চ চীনে শাওমির ‘Spring Conference’ আয়োজিত হবে। উক্ত দিনে শাওমি কোন কোন প্রোডাক্ট লঞ্চের ঘোষণা করবে তা নিয়েই মূলত গুঞ্জন চলছিল। তবে যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শাওমি সরকারি ভাবে জানিয়ে দিল, ২৯ মার্চ দুটি নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন লঞ্চ হচ্ছে। যেগুলি হল Xiaomi Mi 11 Pro ও  Mi 11 Ultra৷ উল্লেখ্য, ফোনদুটি নিয়ে চর্চা অনেক দিন ধরেই চলছে ও লাইভ ইমেজ বলুন বা স্পেসিফিকেশন ইতিমধ্যে লিক হয়েছে। এখনও পর্যন্ত শাওমি এমআই ১১ আল্ট্রা ও এমআই ১১ প্রো সর্ম্পকে কী কী তথ্য সামনে এসেছে দেখে নেওয়া যাক।

Xiaomi Mi 11 Pro ও Mi 11 Ultra স্পেসিফিকেশন ও ফিচার

শাওমি এমআই ১১ প্রো ও শাওমি এমআই ১১ আল্ট্রা, দুটি স্মার্টফোনেই WQHD+ রেজোলিউশনের ৬.৮ ইঞ্চি কোয়াড-কার্ভড OLED ডিসপ্লে থাকবে। যা ১২০ হার্টজ এডাপ্টিভ রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট করবে। ডিসপ্লের পাঞ্চ হোল কাটআউটে ২০ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা থাকবে। IP68 রেটিং থাকার পাশাপাশি ফোনের ওপর থাকবে অত্যন্ত শক্তিশালী কর্নিং গোরিলা গ্লাস ভিক্টাস প্রোটেকশন।

Xiaomi Mi 11 Pro ও Mi 11 Ultra-র অন্যতম আকর্ষণ হবে এদের ক্যামেরা। ফাঁস হওয়া ছবি অনুসারে ফোনদুটি ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ সহ আসতে চলেছে। ক্যামেরা বাম্প হবে তাগড়াই আকারের। ক্যামেরা মডিউলে দুটি বড়ো সেন্সর এবং একটি পেরিস্কোপ লেন্স থাকবে। রিপোর্ট অনুযায়ী যেগুলি হল ৫০ মেগাপিক্সেল Samsung ISOCELL GN2 প্রাইমারি সেন্সর, ৪৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রাওয়াইড লেন্স এবং ১২০x জুম সাপোর্ট সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল পেরিস্কোপিক টেলিফটো জুম লেন্স। ক্যামেরা মডিউলের পাশে আবার খুব ছোট্ট একটি সেকেন্ডারি ডিসপ্লে দেওয়া হবে।

দুটি ডিভাইসই চলবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসরে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য দুটি ফোনেই থাকবে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। শাওমি এমআই ১১ প্রো তে ৬৭ ওয়াট ওয়্যারড ফাস্ট চার্জিং, ৬৭ ওয়াট ওয়্যারলেস ফাস্ট চার্জিং, এবং ১০ ওয়াট রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট করবে। আবার শাওমি এমআই ১১ আল্ট্রা ফোনে ১২০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷