বেড়ে যাবে ফোনের র‌্যাম, Redmi, Poco ও Mi ফোনে আসছে ভার্চুয়াল র‌্যাম ফিচার

Xiaomi MIUI Could Soon Get Virtual RAM Feature all you need to know

Xiaomi এখন Mi, Redmi, ও Poco ব্র্যান্ডের নির্দিষ্ট সংখ্যক স্মার্টফোনে MIUI 12.5 আপডেট রোলআউটের জন্য কাজ করে চলেছে৷ ইউজার এক্সপেরিয়েন্স উন্নীত করার লক্ষ্যে শাওমি আপকামিং এই আপডেটে একগুচ্ছ নতুন ফিচার যুক্ত করবে বলে জল্পনা রয়েছে৷ যদিও সেগুলি কী কী, তা শাওমির তরফে এখনও অফিসিয়ালভাবে ঘোষণা করা হয়নি৷ তবে এমআইইউআই বিটা কোড থেকে আসন্ন আপডেটের একটি নতুন ফিচার সম্পর্কে সম্প্রতি জানা গেল৷ আসলে বিটা কোডে “External RAM” (এক্সটার্নাল র‌্যাম) কথাটি উল্লেখ করা হয়েছে; যার অর্থ শাওমি খুব সম্ভবত নতুন আপডেটে র‌্যাম এক্সটেনশন সাপোর্ট যুক্ত করতে চলেছে৷ শব্দগুলির সাথে অপরিচিত মনে হলে আপনাদের সুবিধার্থে বলে রাখি, ভিভো এক্স৬০ সিরিজ ও ওয়ানপ্লাস ৯ সিরিজের ‘ভার্চুয়াল র‌্যাম’ ফিচারের সাথে এর কোনো পার্থক্য নেই৷ এই ফিচারে প্রয়োজন অনুযায়ী ইন্টারনাল স্টোরেজের কিছু অংশ র‌্যাম হিসেবে ব্যবহার করা যায়৷

টুইটার ব্যবহারকারী Kacper Skrzypek এমআইইউআই-এর কোডে ফিচারটির প্রথম হদিশ পান৷ Kacper তার একটি টুইটের নিচে স্ক্রিনশট পোস্ট করে বলছেন, সবেমাত্র ফোনে মেনুটি সক্রিয় করতে পেরেছেন৷ যদিও এটি এখনও পর্যন্ত লঞ্চ হওয়া কোনও এমআই ফোন দ্বারা সমর্থিত নয়৷ পরীক্ষা করার জন্য ১ জিবি ভার্চুয়াল র‌্যাম Kacper সেট করে রেখেছেন৷ উল্লেখ্য, প্রত্যেক শাওমি ইউজারদের কাছে ফিচারটি কবে রোলআউট হবে তা এখনও অজানা৷ আবার অফিসিয়াল ভার্সনে ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ থেকে কতটা পরিমাণ ভার্চুয়াল র‌্যাম নেওয়া হবে সে কথাও জানা যায়নি৷

প্রতিবেদনটি পড়ার পর অনেকেই মাথা চুলকে বলতেই পারেন, এক্সটেন্ডেড র‌্যাম বা ভার্চুয়াল র‌্যাম বিষয়টি কিন্তু বোধগম্য হল না৷ তাঁদের জন্য নিম্নে ফিচারটি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল৷

এক্সটেন্ডেড র‌্যাম বা ভার্চুয়াল র‌্যাম কী এবং এটি কীভাবে কাজ করে?

প্রত্যেকটি স্মার্টফোনেই র‌্যামের একটি নির্দিষ্ট সীমা থাকে৷ অনেক সময় ফোনে কোনো হেভি অ্যাপ্লিকেশন রান করাতে গেলে আরও বেশি র‌্যামের প্রয়োজন হয়৷ কিন্তু স্মার্টফোনের সীমিত পরিমাণ র‌্যাম অনেক সময় সেই চাহিদা পূরণ করতে পারে না, আর এখানেই ত্রাতার ভূমিকায় আসে ভার্চুয়াল র‌্যাম বা এক্সটেন্ডেড র‌্যাম ফিচার৷ র‌্যামের নির্দিষ্ট সীমা পার হবার পর র‌্যামের চাহিদা মেটাতে ফিচারটি স্মার্টফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ থেকে প্রয়োজনমতো জায়গা নিয়ে র‌্যাম হিসেবে ব্যবহার করে, স্টোরেজের এই ব্যবহৃত জায়গাকেই ভার্চুয়াল র‌্যাম বলা হয়। ভার্চুয়াল র‌্যামের উপস্থিতিতে অ্যাপ্লিকেশন ক্রাশ করার ঘটনা বা ফোন হ্যাং হয়ে যাওয়ার ঘটনাও অনেকটাই কমে যায়৷

সাধারণত ৮ জিবি বা ১২ জিবি র‌্যামের স্মার্টফোন অতিরিক্ত ৩ জিবি মেমোরি ভার্চুয়াল র‌্যাম পেয়ে থাকে৷ যার অর্থ, অ্যাপ্লিকেশন আরও স্টোরেজ চাইলে ফোনে ১১ জিবি অথবা ১৫ জিবি র‌্যাম থাকছে৷ আবার ৩ জিবি /৪ জিবি র‌্যামের স্মার্টফোন  ইন্টারনাল স্টোরেজ থেকে অতিরিক্ত ১ জিবি মেমোরি ভার্চুয়াল র‌্যাম হিসেবে ব্যবহার করতে পারে৷

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন