Redmi Note 10 Pro ও Note 10 Pro Max ফোনের সস্তা ভ্যারিয়েন্ট আর পাওয়া যাবে না

Redmi Note 10 Pro এবং Redmi Note 10 Pro Max-এর এই স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট আর পাওয়া যাবে না

চলতি বছরের মার্চ মাসে বেশ হইহই করে Redmi Note 10 (রেডমি নোট ১০) সিরিজ চালু করে Xiaomi (শাওমি)। আর অন্যান্যবারের মতই, অল্প সময়ের মধ্যে এই ফোনগুলি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তবে আপনি যদি এই সিরিজের Redmi Note 10 Pro (রেডমি নোট ১০ প্রো) এবং Note 10 Pro Max (নোট ১০ প্রো ম্যাক্স) স্মার্টফোন দুটি কিনবেন বলে মনস্থির করে থাকেন, তাহলে আপনার জন্য আজ রয়েছে একটি দুঃসংবাদ! আসলে এই ফোনগুলি প্রাথমিকভাবে তিনটি স্টোরেজসহ লঞ্চ হলেও, এখন চীনা টেক জায়ান্টটি Redmi Note 10 Pro এবং Note 10 Pro Max-এর সস্তা ভ্যারিয়েন্টগুলির বিক্রি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে আর কয়েকদিন পর থেকে বাজারে ফোনগুলির বেস ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যাবে না।

বন্ধ হল Redmi Note 10 Pro এবং Redmi Note 10 Pro Max-এর এই স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট

রেডমি নোট ১০ প্রো এবং রেডমি নোট ১০ প্রো ম্যাক্স মডেল দুটির বেস ভ্যারিয়েন্ট ৬ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজ সহ এসেছিল। এক্ষেত্রে প্রো মডেলটির দাম রাখা হয়েছিল ১৫,৯৯৯ টাকা এবং ম্যাক্স সংস্করণটি ১৮,৯৯৯ টাকায় বিক্রি হত। কিন্তু এই মডেলগুলি দীর্ঘদিন ধরে কোম্পানির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে পাওয়া যাচ্ছে না।

তাই অনেকেই মনে করছেন যে, কোম্পানি রেডমি নোট ১০ প্রো এবং রেডমি নোট ১০ প্রো ম্যাক্সের এই ভ্যারিয়েন্টগুলির বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে। পাশাপাশি টিপস্টাররাও একই দাবি করেছেন। ফলে এখন থেকে রেডমি নোট ১০ প্রো বা প্রো ম্যাক্সের ক্রেতাদের ৬ জিবি/১২৮ জিবি স্টোরেজ বা ৮ জিবি/১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের মধ্যে কোনো একটি বেছে নিতে হবে। ডিভাইস দুটি ডার্ক নাইট, গ্লাসিয়াল ব্লু এবং ভিনটেজ ব্রোঞ্জ রঙে পাওয়া যাবে।

উল্লেখ্য, লঞ্চের পরবর্তী কিছুদিনের মধ্যে শাওমি দুবার নোট ১০ সিরিজের প্রো ভ্যারিয়েন্টের দাম ৫০০ টাকা বাড়িয়েছিল।

Redmi Note 10 Pro এবং Redmi Note 10 Pro Max-এর স্পেসিফিকেশন

ফিচারের কথা বললে, রেডমি নোট ১০ প্রো এবং রেডমি নোট ১০ প্রো ম্যাক্সে ৬.৬৭ ইঞ্চি ফুলএইচডি + সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে যার রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ। এছাড়া স্ক্রিন প্রোটেকশনের সুরক্ষার জন্য ফোনগুলিতে কর্নিং গরিলা গ্লাস বিদ্যমান।

ফটোগ্রাফির জন্য প্রো মডেলে ৬৪ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরাসহ কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। অন্যদিকে ম্যাক্স ভ্যারিয়েন্টে বর্তমান ১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারী সেন্সর সহ কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। দুটি ফোনেই কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৩২জি প্রসেসর এবং ৫,০২০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.