Xiaomi স্বল্পমূল্যে চলতি বছরে আনছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসরের তিনটি ফোন

Xiaomi to launch three smartphones with snapdragon 870 soc this year

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের প্রসেসরের ক্ষেত্রে কার্যত কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগনের (Qualcomm Snapdragon) জুড়ি মেলা ভার। দীর্ঘদিন ধরে বিশ্বাসযোগ্য সংস্থা, কোয়ালকম নির্মিত স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসরগুলি ব্যবহৃত হয়ে আসছে নামী দামী সমস্ত স্মার্টফোনে। এবছরের শুরুতে কোয়ালকম লঞ্চ করেছিল তাদের লেটেস্ট চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ (Snapdragon 870)। স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ (Snapdragon 865+) এর আপগ্রেড ভার্সন হিসাবে এই প্রসেসরকে লঞ্চ করা হয়েছিল। স্বল্পমূল্যের এই প্রসেসরটির গ্ৰহণযোগ্যতাও চোখে পড়ার মতো। বিভিন্ন স্মার্টফোন কোম্পানি মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই তাঁদের নতুন ডিভাইসে উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করেছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ (Snapdragon 870) চিপসেটটিকে এবং বলাই বাহুল্য আগামীতেও করবে।

চায়নিজ টেক জায়ান্ট শাওমি (Xiaomi) ইতিমধ্যেই স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসরসহ বেশ কয়েকটি স্মার্টফোন বাজারে লঞ্চ করেছে। এর মধ্যে আছে গত মাসে লঞ্চ হওয়া Mi 10S এবং Redmi K40। তবে এছাড়াও চিনা স্মার্টফোন কোম্পানিটি চলতি বছরে এই প্রসেসরের সাথে আরও তিনটি স্মার্টফোন লঞ্চ করবে। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট গিজমোচায়না, জানিয়েছে, শাওমি (Xiaomi) এই বছর কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ (Snapdragon 870) প্রসেসরের সাথে কমপক্ষে আরও তিনটি নতুন হ্যান্ডসেট লঞ্চ করার পরিকল্পনা করছে। যদিও হ্যান্ডসেটগুলির নাম বা কোন মাসে হ্যান্ডসেটগুলি লঞ্চ হবে এবিষয়ে কোনো সঠিক তথ্য এই রিপোর্টে নেই। তবে তারা আরও জানিয়েছে যে, অরিজিনাল ইক্যুইপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারারা (OEM) কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ (Snapdragon 870) প্রসেসরের ওপর বাড়তি আগ্ৰহ দেখাচ্ছে, কারণ এই প্রসেসর ব্যবহার করলে স্বল্পমূল্যে প্রিমিয়াম স্মার্টফোন তৈরি করা সম্ভব। এর আগে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ (Snapdragon 870) প্রসেসরটি ব্যবহার করে ভিভো বিশ্ব বাজারে X60 ও X60 pro স্মার্টফোন দুটি লঞ্চ করেছে। এছাড়াও Motorola Edge S, iQoo Neo 5 হ্যান্ডসেটগুলিতেও ব্যবহৃত হয়েছে এই কোয়ালকম প্রসেসরটি।

স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসরের কথা বললে, গতবছর লঞ্চ হওয়া স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ এর মতো এটিকে ৭ ন্যানোমিটার ফ্যাব্রিকেশন প্রসেসের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে এবং এটি Kryo 585 সিপিইউ-এর সাথে এসেছে যার মধ্যে ট্রাই-ক্লাস্টার আর্কিটেকচার বর্তমান। স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ চিপসেটের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এর প্রাইম কোরে পরিলক্ষিত হয়েছে। চিপসেটের কর্টেক্স এ৭৭ প্রাইম কোরের ক্লক স্পিড ৩.২ গিগাহার্টজে চলে যা স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫-এর ২.৮৪ গিগাহার্টজ সীমার তুলনায় বেশ দ্রুত বলা চলে। আবার সর্বোচ্চ ক্লক স্পিডের দিক থেকে এটি স্ন্যাপডাগন ৮৬৫ প্লাস (ক্লকস্পিড ৩.১ গিগাহার্টজ)- এর ঘাড়েও নিঃশ্বাস ফেলছে। এর অন্য সাতটি কোরের মধ্যে আছে ২.৪ গিগাহার্টজ ক্লক স্পিডের তিনটি কর্টেক্স এ-৭৭ কোর ও ১.৮ গিগাহার্টজ ক্লক স্পীড যুক্ত চারটি কর্টেক্স এ-৫৫ কোর। এই চিপসেটে পাবেন Adeno 650 জিপিইউ।

স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ ও ৮৬৫-এর অনুরূপে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০-এ ২০০ মেগাপিক্সেলের ফটো ক্যাপচার সাপোর্ট পাওয়া যাবে। এর ISP স্পেকট্রা ৪৮০ ইমেজ সিগন্যাল প্রসেসর ২৫ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা বা ৬৪ মেগাপিক্সেল সিঙ্গেল ক্যামেরা সাপোর্ট করবে। এটি ৩০ ফ্রেম পার সেকেন্ডে 8K ভিডিও রেকর্ডিং সাপোর্ট রয়েছে। এছাড়া স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ ও ৮৬৫-এর মতো এটি কুইক চার্জ ৪+ টেকনোলজি বহন করবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন