স্যামসাংয়ের পর iPhone 12 কে নিয়ে মজা শাওমির, চুপ Apple

xiaomi-trolls-apple-for-not-including-the-charger-in-the-iphone-12-box

Apple ও Samsung-এর প্রযুক্তিগত লড়াইয়ের কথা কে না জানে! সম্প্রতি, Apple-এর iPhone 12 ডিভাইসটি লঞ্চ হওয়ার পর, সোশ্যাল মিডিয়ায় মার্কিন সংস্থাটিকে Samsung যে বিদ্রুপ করেছে – সে কথা আমরা গতকালই আপনাদের জানিয়েছি। তবে শুধু দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থাটিই নয়, অ্যাপলকে নিয়ে মশকরা করার সুযোগ হাতছাড়া করলো না জনপ্রিয় চীনা স্মার্টফোন নির্মাতা Xiaomi।

iPhone 12-র প্রতি ব্যঙ্গ বিদ্রুপের কারণ হল নতুন ডিভাইসগুলির বক্সে চার্জার অ্যাডাপ্টার বা ইয়ারপড দেয়নি অ্যাপল। এখন থেকে আইফোন কিনতে হলে আলাদাভাবে চার্জার অ্যাডাপ্টার কিনতে হবে। ফলে ফোনটির ঘোষণা মাত্রই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেতিবাচক মন্তব্যের বন্যা বয়ে গেছে। এই পরিস্থিতিতে, শাওমি, স্যামসাংয়ের মতই সংস্থার ফ্ল্যাগশিপ ফোনের বিজ্ঞাপনসহ একটি পোস্ট করেছে, যেখানে ফোনটির বিশেষ ফিচারগুলি হাইলাইট করা হয়েছে এবং এই ফোনগুলির সাথে চার্জিং অ্যাডাপ্টার উপলব্ধ থাকবে এমনটাই স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে।

নতুন আইফোন লঞ্চ হওয়ার পর, একটি টুইট পোস্টে শাওমি চতুরভাবে বলেছে, চিন্তার কোনো কারণ নেই। সংস্থাটি তার নতুন Mi 10T Pro ডিভাইসের সাথে সমস্ত অত্যাবশ্যকীয় অ্যাক্সেসরিজ সরবরাহ করছে। এক্ষেত্রে, স্যামসাংয়ের মতই সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে iPhone 12-র উল্লেখ করেনি শাওমি। কিন্তু iPhone 12-কে কেন্দ্র করে নিজস্ব ডিভাইসের প্রচারের অভিনব পন্থা অবলম্বন করেছে শাওমি – তাতে কোনো সন্দেহ নেই! তবে যাইহোক, এখনো অবধি এই সমস্ত সমালোচনার কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি অ্যাপল।

মনে করা হচ্ছে iPhone 12-র সাথে জম্পেশ প্রতিযোগিতা করবে শাওমির Mi 10T Pro ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসটি। যদিও দুটি ফোনের মধ্যে দামের বিরাট ফারাক আছে। iPhone 12 এর প্রাথমিক দাম শুরু হয়েছে ৬৯,৯৯৯ টাকা থেকে। যদিও Mi 10T Pro-র দাম ৩৯,৯৯৯ টাকা। এই ডিভাইসটিতে ৬.৬৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে, যার স্ক্রিন রেজোলিউশন ১,০৮০×২,৪০০ পিক্সেল। এই স্মার্টফোনতে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। শুধু তাই নয় ফোনটিতে একটি ১০৮ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, ফোনটিতে ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টসহ ৫,০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি রয়েছে।