Yamaha Aerox 155: অসাধারণ স্টাইল, ফিচার ও পারফরম্যান্সের মিশেলে ম্যাক্সি-স্কুটার এল বাজারে

Yahama Aerox 155 ম্যাক্সি-স্কুটার অফিসিয়ালি ভারতে লঞ্চ হয়ে গেল, দাম ১.২৯ লাখ টাকা

yamaha-aerox-155-launched-in-india-at-price-rs-1-29-lakh-features

ইয়ামাহা (Yamaha) হঠাৎই ভারতের স্কুটারের বাজারকে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখতে শুরু করেছে। উদাহরণ হিসেবে সম্প্রতি আত্মপ্রকাশ করা মাইল্ড-হাইব্রিড প্রযুক্তির Fascino Fi 125 ও Ray-ZR এর কথাই ধরে নেওয়া যাক। ভারতে এই প্রযুক্তির স্কুটার আগে দেখা যায়নি। স্কুটারে পারফরম্যান্স ও ফিচার বরাবরই উপেক্ষিত বলে অভিযোগ ছিল অনেকের। তাঁদের জন্য এবার কমপ্লিট সলিউশন প্যাকেজ নিয়ে এল জাপানের টু-হুইলার সংস্থাটি। কারণ, আজ Yamaha-র বহু প্রত্যাশিত ম্যাক্সি-স্কুটার, Aerox 155 ভারতে অফিসিয়ালি লঞ্চ হয়ে গেল।

এই প্রথম দেশের প্রিমিয়াম সেগমেন্টে এরকম স্কুটার পা রাখল। সুপারডুপার লুকস, স্ট্রিট মোটরসাইকেলের মতো পাওয়ার, এবং লোডেড-ফিচারের সংমিশ্রণে আক্ষরিক অর্থেই Yamaha Aerox 155 যেন কমপ্লিট প্যাকেজ। ভারতে পারফরম্যান্স-কেন্দ্রিক স্কুটারের খোঁজ করতে থাকা বাইকারদের আজ প্রতীক্ষার অবসান হল বলেই মনে করা হচ্ছে।

Yamaha Aerox 155 ম্যাক্সি-ডিজাইন

স্কুটারের আগে ম্যাক্সি কথাটা কেন ব্যবহার করা হচ্ছে, তা নিয়ে এতক্ষণে নিশ্চয় আপনাদের মনে প্রশ্নের উদয় হয়েছে। আসলে আধুনিক সমাজে আধুনিক হয়ে ওঠার জন্য আমরা কোনও চেষ্টা বাকি রাখি না। নিজের বাহনের ক্ষেত্রেও সেটা স্পষ্ট৷ বর্তমানে সাদামাটা ডিজাইনের স্কুটার নতুন প্রজন্মের বহু ক্রেতার কাছে বেমানান লাগে। যার ফলে প্রথাগত স্কুটারকে শার্প-স্পোর্টি লুকস, আরও পাওয়ার এবং কাটিং-এজ ফিচারে সাজিয়ে হাজির করছে নানা টু-হুইলার সংস্থা। এই ধরনের স্কুটারের অদ্যাক্ষরে ‘ম্যাক্সি’ জুড়ে দেওয়া হয়। ম্যাক্সি-স্কুটারে বড় ইঞ্জিন এবং বেশি স্পেস থাকে। চালাতে ব্যাপক আরাম, লং রাইডের জন্য আদর্শ।

ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫ ম্যাক্সি-স্কুটারের স্টাইল এমন যে, রাস্তায় নিয়ে বেড়োলে কেউ চোখ ফেরাতে পারবে না। ডিজাইনের প্রসঙ্গে আসলে, এতে শার্প বডিওয়ার্ক, শর্ট উইন্ডস্ক্রিন, স্পোর্টি গ্রাফিক্স, উইং-শেপের ডিআরএল-সহ ডুয়েল পড এলইডি হেডল্যাম্প, ফেয়ারিং মাউন্টেড টার্ন ইন্ডিকেটর, হ্যাজার্ড ল্যাম্প, এবং এলইডি টেল ল্যাম্প (পিছনের সিটের নীচে) রয়েছে। প্রথাগত স্কুটারের সামনের অংশ স্লিক হয়। কিন্তু ম্যাক্সি-স্কুটার বিভাগে আসার জন্য, ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫-এর সামনে হেভি ফেয়ারিংয়ের উপস্থিতি লক্ষণীয়।

পুরোদস্তুর ম্যাক্সি-স্কুটার হওয়ার ফলে ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫-এ ফ্লোরবোর্ডে পা জড়ো করে রাখা যাবে না। অনেকটা মোটরসাইকেলের ধাঁচে চালাতে হবে। সুতরাং, স্কুটারের ফ্লোরবোর্ডে জিনিসপত্র রাখার যে অভ্যাস আমাদের রয়েছে, ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫ কিনলে তা ত্যাগ করতে হবে। এই ম্যাক্সি-স্কুটারের ফুয়েল ফিলার ক্যাপের অবস্থানও বেশ ইন্টারেস্টিং। এটি ফ্লোরবোর্ডের ঠিক কেন্দ্রে৷ অর্থাৎ তেল ভরার সময় মোটরসাইকেলের মতো ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫-এর সামনের দিকে ফুয়েল ক্যাপ খুলতে হবে৷ তবে ফুয়েল ট্যাঙ্কের ক্যাপাসিটি কিন্তু বেশ কম। এতে ৫.৫ লিটার তেল ভরা যাবে।

Yamaha Aerox 155 মেকানিক্যাল স্পেসিফিকেশন

ভারতে বিপুল জনপ্রিয় স্পোর্টস বাইক আরওয়ানফাইভের ইঞ্জিন দেওয়া হয়েছে ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫ ম্যাক্সি-স্কুটারে। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। ইঞ্জিনটি ১৫৫ সিসি-র। ভ্যারিয়েবেল ভালভ অ্যাকচুয়েশনের সাথে আসা এই লিকুইড কুল্ড, সিঙ্গেল সিলিন্ডার ইঞ্জিনের থেকে ১৪.৮ বিএইচপি পাওয়ার এবং ১৪ এনএম টর্ক পাওয়া যায়। অর্থাৎ এটি নতুন প্রজন্মের ইয়ামাহা আরওয়ানফাইভ ভি৪.০-এর থেকে ৪ বিএইচপি কম পাওয়ার উৎপন্ন করে।

ধারাবাহিকভাবে অপ্টিমাম পারফরম্যান্স দেওয়ার জন্য ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫-এর ইঞ্জিনে ইলেকট্রনিক ফুয়েল ইনজেকশন প্রযুক্তি রয়েছে। তাছাড়া ইঞ্জিনে একটি নতুন সিলিন্ডার হেড এবং একটি কমপ্যাক্ট কম্বাশন চেম্বার যুক্ত করা হয়েছে। যাতে উচ্চ কমপ্রেশন রেশিও এবং কম্বাশন এফিসিয়েন্সি অর্জন করা সম্ভব হয়।

সেগমেন্টের বাকি স্কুটারের মতো Yamaha Aerox-এর সামনে ২৬ মিমি টেলিস্কোপিক ফোর্কস এবং পিছনে টুইন রিমোট শক অ্যাবজর্ভার আছে। ব্রেকিংয়ের জন্য সামনে ২৩০ মিমি ডিস্ক ও পিছনে ড্রাম ব্রেক দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে আছে সিঙ্গেল-চ্যানেল এবিএস।

Yamaha Aerox 155 launched in India

Yamaha Aerox 155 ফিচার

প্রিমিয়াম স্কুটারে প্রিমিয়াম ফিচার থাকাটাই স্বাভাবিক। আর এই দিক থেকে ইয়ামাহা এরোক্স ১২৫-এও কোনও ব্যতীক্রম নেই। স্মার্ট মোটর জেনারেটর সিস্টেম, অটোমেটিক স্টার্ট/স্টপ সিস্টেম, এলসিডি ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট কনসোল, সেগমেন্ট ফার্স্ট ট্র্যাকশন কন্ট্রোল সিস্টেম, ইউএসবি চার্জার (অপশনাল) ২৫ লিটারের বুট স্টোরেজ – এই ম্যাক্সি-স্কুটারের ফিচারগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

এছাড়া Yamaha Aerox 155-এর অন্যতম হাইলাইট হল ব্লুটুথ এবং ইয়ামাহা ওয়াই-কানেক্ট স্মার্টফোন অ্যাপ্লিকেশন সাপোর্ট। এর ফলে স্কুটারকে সরাসরি কানেক্ট করা ‌যাবে আপনার স্মার্টফোনের সঙ্গেই। স্কুটারের স্পিডোমিটার ক্লাস্টারেই দেখা ‌যাবে কে ফোন করছে আপনাকে, ফোনে চার্জই বা রয়েছে কত, অথবা ফোনের সিগন্যাল কতটা শক্তিশালী।

Yamaha Aerox 155 দাম

ইয়ামাহা এরোক্স ১৫৫-এর দাম শুরু হচ্ছে ১.২৯ লক্ষ টাকা থেকে। এটি ব্লু/সিলভার এবং হোয়াইট/ব্ল্যাক ডুয়েল টোনের কালার কম্বিনেশনে পাওয়া যাবে। এছাড়াও ম্যাক্সি-স্কুটারটি লিমিটেড এডিশন মনস্টার এনার্জি মোটোজিপি ভার্সনে কেনা যাবে, খরচ হবে ১.৩০ লক্ষ টাকা। উল্লেখ্য, এগুলি এক্স-শোরুমের দাম।

Aerox 155 তার ইউনিক ডিজাইন এবং ক্লাস লিডিং ফিচার ও পারফরম্যান্সের সৌজন্যে ক্রেতাদের মন জয় করবে বলেই মনে করছে ইয়ামাহা।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

Shuvro primarily writes about smartphone and automobile industry. He is an assistant editor for techgup. Shuvro has a bachelor degree in English literature. His interest also includes cosmopolitan affairs, scientific discoveries, and quizzing.