সাবধান! আপনার স্মার্টফোন হতে পারে করোনা ভাইরাসের ‘ট্রোজান হর্স’ কি করণীয় জেনে নিন

আপনারা কি আপনার স্মার্টফোনকে ডিস-ইনফেক্ট করছেন? যদি না করে থাকেন তাহলে এক্ষুনি আপনার স্মার্টফোনকে পরিষ্কার রাখা শুরু করুন। একটি রিসার্চের মাধ্যমে জানা গিয়েছে যে আপনার স্মার্টফোন করোনা ভাইরাসের ‘ ট্রোজান হর্স ‘ অর্থাৎ সাধারণ ভাষায় একটি বড় ক্যারিয়ার বা বাহক হয়ে উঠতে পারে। বিজ্ঞানীরা এখন প্রত্যেক মানুষকে জানাচ্ছেন যাতে তারা নিজেদের স্মার্টফোনকে প্রত্যেকদিন ডি-কন্টামিনেট করেন। বর্তমানে সমস্ত রিসার্চ থেকে জানা গিয়েছে কোভিড-১৯ রোগের জন্য দায়ী মূল ভাইরাসটি অর্থাৎ Sars-CoV-2 মোবাইল ফোন সহ অন্যান্য টাচস্ক্রিন ডিভাইসের স্ক্রিনের উপরে অবস্থিত থাকতে পারে।

রিসার্চাররা জানিয়েছেন যেন প্রত্যেকদিন ব্যবহারকারীরা তাদের নিজের মোবাইল ফোনকে ৭০% আইসো প্রোপাইল দ্রবন দিয়ে ডি-কন্টামিনেট করেন অথবা ফোনসোপের মত কিছু আল্ট্রাভায়োলেট ডিভাইসের মাধ্যমে স্যানিটাইজ করেন। একটি সিস্টেমেটিক রিভিউ থেকে জানা গেছে গোল্ডেন স্টাফ এবং এশ্চেরেশিয়া কোলাই ভাইরাসদুটি হল স্মার্টফোনে সবথেকে বেশি পাওয়া যায় এমন ভাইরাস। মাইক্রোবদের জন্য স্মার্টফোন সবথেকে ভালো বেড়ে ওঠার জায়গার মধ্যে একটি।

তাই যদি আমরা আমাদের স্মার্টফোনকে প্রত্যেকদিন পরিষ্কার করি তাহলে আমরা করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম হব। যার ফলে বহু মানুষের জীবন সুরক্ষিত থাকবে।

গত মার্চে, ভারতের চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন যে সময় সময় হাত পরিষ্কার করার সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যেককে প্রতি ৯০ মিনিট অন্তর অ্যালকোহল-জাতীয় স্যানিটাইজারের মাধ্যমে আপনাদের স্মার্টফোন স্যানিটাইজ করা উচিত। একটি ছোট কাপড়ের টুকরো অথবা তুলোর অংশের উপরে কয়েক ফোঁটা অ্যালকোহল-জাতীয় স্যানিটাইজার নিয়ে তা আপনাকে আপনার স্মার্টফোনের উপর ঘষতে হবে। এরকম করা গেলে আপনার স্মার্টফোন ডি-কন্টামিনেট হয়ে যাবে। এবং আপনারা করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে পারবেন।