৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সহ লঞ্চ হল ZTE Voyage 20 Pro 5G, রয়েছে ডাইমেনসিটি ৭২০ প্রসেসর

জেডটিই ভয়েজ ২০ প্রো ফোনের ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম রাখা হয়েছে ২,১৯৮ ইউয়ান (আনুমানিক ২৫,৬৪০ টাকা)

zte-voyage-20-pro-5g-launched-price-yuan-2198-with-dimensity-720-soc-specifications

চীনা মোবাইল সংস্থা ZTE আজ তাদের দেশীয় বাজারে লঞ্চ করলো মিড রেঞ্জার স্মার্টফোন Voyage 20 Pro, যার দাম রাখা হয়েছে ২৬,০০০ টাকার‌ কম। নতুন এই ফোনে রয়েছে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৭২০ প্রসেসর, ৮ জিবির র‍্যাম ও ৬৬ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট। আবার ZTE Voyage 20 Pro এসেছে ৬৪ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি রিয়ার ক্যামেরা ও অ্যামোলেড ডিসপ্লের সঙ্গে। ফোনটি তিনটি রঙের বিকল্পে পাওয়া যাবে। আসুন জেনে নেওয়া যাক ZTE Voyage 20 Pro এর দাম ও সমস্ত স্পেসিফিকেশন।

জেডটিই ভয়েজ ২০ প্রো দাম (ZTE Voyage 20 Pro Price)

জেডটিই ভয়েজ ২০ প্রো ফোনের ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম রাখা হয়েছে ২,১৯৮ ইউয়ান (আনুমানিক ২৫,৬৪০ টাকা)। এই ফোনটি ডার্ক গ্রীন গ্রেডিয়েন্ট, ডুয়াল টোনড ব্লু ও পিংকিশ গ্রেডিয়েন্ট- এই তিনটি রঙের বিকল্পে পাওয়া যাবে। অন্যান্য মার্কেটে ফোনটি কবে আসবে তা এখনও জানা যায়নি।

জেডটিই ভয়েজ ২০ প্রো স্পেসিফকেশন, ফিচার (ZTE Voyage 20 Pro specifications, Features)

ডুয়েল সিমের জেডটিই ভয়েজ ২০ প্রো ফোনে আছে ৬.৬৭ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে ৯৩.৮ শতাংশ স্ক্রিন টু বডি রেশিও, ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও, ৯০ হার্টজ স্ক্রিন রিফ্রেশ রেট ও ৩৬০ হার্টজ স্যাম্পলিং রেট অফার করবে। আবার এই ডিসপ্লেতে সাপোর্ট করবে ১.০৭ বিলিয়ন রং এবং ডিসিআই পি৩ কালার গ্যামট। এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৭২০ প্রসেসর। ফোনটি ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ সহ পাওয়া যাবে।

ফটোগ্রাফির জন্য ZTE Voyage 20 Pro ফোনের পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা সেন্সর সহ একটি আল্ট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স এবং ম্যাক্রো সেন্সর। যদিও শেষের দুটি ক্যামেরার স্পেসিফিকেশন জানা যায়নি। সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা।

ZTE Voyage 20 Pro ফোনটি সুপার অ্যান্টেনা ৩.০ সহ এসেছে। সংস্থার তরফে দাবি করা হয়েছে এর ফলে ফোনের রিসেপশন অনেক স্থিতিশীল হবে ও ডাউনলোড স্পিড আরও দ্রুত হবে। এই সুবিধা পাওয়া যাবে স্মার্টফোনটির “স্পিড মোড” এর দ্বারা ৪ জি+ ৫ জি+ ওয়াইফাই থ্রি চ্যানেল নেটওয়ার্ক অ্যাক্সিলারেশনের মাধ্যমে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই ফোনে দেওয়া হয়েছে ৫১০০ এমএএইচ ব্যাটারি, যার সাথে ৬৬ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।