ব্যস্ততায় লাইন দিতে হবেনা, এবার অনলাইন থেকেই ইচ্ছেমতো বুক করুন Metro-র টিকিট

আজকের দিনেও অনেকেই মেট্রোর টিকিটের জন্য দীর্ঘ লাইনে দাঁড়ান, অথচ কোনো হ্যাপা ছাড়াই অনলাইনে এই টিকিট বুক করা যায়।

বাস, ট্রেনের পাশাপাশি ভারতের মহানগরগুলিতে পরিবহনের অন্যতম সহজ ও জনপ্রিয় মাধ্যমটি হল মেট্রো (Metro)। পাতালরেলে চড়ে শহর কলকাতার এদিকে-ওদিকে যাতায়াত করেননা, এমন মানুষ নেই। কিন্তু মুশকিল হচ্ছে যে, আজকের দিনেও অনেককেই মেট্রোর টিকিটের জন্য দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। তাঁরা এখনও অবগত নন যে, কোনো হ্যাপা ছাড়াই অনলাইনে টিকিট বুক করা যায়। এমনকি দিল্লি মেট্রো গত বছর থেকে WhatsApp-এর মাধ্যমে টিকিট কাটার সুবিধা দিচ্ছে – আপনি এই শহরে ভ্রমণ করলে টিকিটের প্রিন্ট আউট না নিয়ে কেবল WhatsApp-এর জোরেই মেট্রো চড়তে পারবেন। কীভাবে? আসুন জেনে নিই মেট্রোর WhatsApp-বেসড্ টিকিটিং সিস্টেমের নিয়মাবলী।

WhatsApp-এর মাধ্যমে এভাবে মেট্রো টিকিট বুক হবে

দিল্লি মেট্রোর হোয়াটসঅ্যাপ টিকিটিং সিস্টেম হিন্দি এবং ইংরেজি দুটি ভাষায় উপলব্ধ যা কাজ করে একটি চ্যাটবটের সাহায্যে। এক্ষেত্রে মেট্রো টিকিট বুক করতে –

১. আপনাকে প্রথমে +৯১৯৬৫০৮৫৫৮০০ নম্বরটি সেভ করতে হবে এবং তাতে ‘Hi’ মেসেজ পাঠাতে হবে।

২. দ্বিতীয় ধাপে বেছে নিতে হবে নিজের পছন্দমতো ভাষা।

৩. এরপর ‘Buy Ticket’ অপশনে ক্লিক করে যে স্টেশন থেকে ভ্রমণ করতে চান তার নাম লিখুন।

৪. যে স্টেশনে যেতে চান সেই গন্তব্যের নাম লিখুন।

৫. পরবর্তী ধাপে পেমেন্ট করলেই টিকিট বুক হয়ে যাবে।

মনে রাখবেন, এক্ষেত্রে আপনি একবারে সর্বোচ্চ ৬টি টিকিট বুক করতে পারেন। সকাল ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সমস্ত মেট্রো লাইনের জন্য এই টিকিট বুকিং সুবিধা উপলব্ধ। তবে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে টিকিট নেওয়ার পরে, তা বাতিল করা যাবেনা।

কলকাতা মেট্রোর জন্য আছে আলাদা অ্যাপ

কলকাতা মেট্রোর যাত্রীরা এই মুহূর্তে হোয়াটসঅ্যাপ বুকিংয়ের সুবিধা পাননা। তবে তাদের জন্য একটি দুর্দান্ত অ্যাপ রয়েছে, যার নাম Metro Ride Kolkata। এতে আপনি এক জায়গায় সমস্ত রকমের পরিষেবা পাবেন – টিকিট বুক, ট্রেন টাইম দেখা, কার্ড রিচার্জ করা, ভাড়া জানা ইত্যাদি সুবিধা এই অ্যাপ থেকে কাজে লাগানো যাবে।