ফের বড়সড় ভুল Flipkart এর, 22 হাজার টাকার স্মার্টফোনের পরিবর্তে পাথর পেলেন ক্রেতা

Infinix Zero 30 5G স্মার্টফোনের পরিবর্তে ডেলিভারি করা হল পাথর, দায় নিতে অস্বীকার Flipkart -এর

আজকাল ই-কমার্স সাইটগুলির মাধ্যমে দামী প্রোডাক্ট অর্ডার করা ঝক্কির ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিগত দু-তিন বছরের মধ্যে ভোক্তাদের ভুল প্রোডাক্ট ডেলিভারি দেওয়ার অভিযোগ একাধিকবার উঠেছে অনলাইন শপিং সাইটগুলির বিরুদ্ধে। যার মধ্যে কয়েকটি ঘটনায় ভুলবশত পাঠানো জিনিস ফেরত নিতেই অস্বীকার করা হয় কোম্পানির তরফ থেকে। এক্ষেত্রে অনলাইন থেকে অর্ডার করা কম দামি জামা-কাপড় বা ছোটোখাটো দ্রব্যাদি যদি পরিবর্তিত হয়ে যায় এবং এর জন্য এক্সচেঞ্জ বা রিফান্ড দেওয়া না হয়, তবে হয়তো অতটাও গায়ে লাগে না।

কিন্তু 22,000 টাকার স্মার্টফোনের পরিবর্তে যদি আস্ত একটা পাথর পরিপাটি করে প্যাক করে ডেলিভার করা হয় তবে মাথায় বাজ পড়ার অনুভূতি হবেই! সম্প্রতি এমনি অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছে এক গাজিয়াবাদ নিবাসী। এই ঘটনা হয়তো সামনেই আসতো না, যদি Flipkart নিজেদের ভুল সংশোধন করে নিতো। কিন্তু এই ই-কমার্স সাইটটি ঘটনার দায় নিতে না চাওয়ায় ক্রেতাটি সোশ্যাল মিডিয়ার তার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে বাধ্য হন।

Infinix Zero 30 5G স্মার্টফোনের পরিবর্তে ডেলিভারি করা হল পাথর, দায় নিতে অস্বীকার Flipkart-এর

গাজিয়াবাদের এক বাসিন্দা গতপরশু অর্থাৎ 28শে মার্চ, ফ্লিপকার্টে 256 জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের Infinix Zero 30 5G স্মার্টফোন অর্ডার করেছিলেন। ওয়ান-ডে ডেলিভারি বিকল্পের অধীনে অর্ডার করায় দিনের দিনই ক্রেতাকে প্রোডাক্টটি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। নিজের পছন্দের মোবাইল অর্ডার করার মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যে তা হাতে এসে পৌঁছালে যেকেউ আনন্দিত হবে। অভিযোগকারী ব্যক্তিটিও হয়েছিলেন। কিন্তু সমস্ত আনন্দ মাটি হয়ে যায় রিটেল বক্স খোলার পর। কেননা রিটেল বক্সের ভিতর ফোনের পরিবর্তে আস্ত একটা পাথর কাগজ মুড়িয়ে পরিপাটি করে রাখা ছিল। যা দেখে ব্যক্তিটি হতবাক হয়ে যান।

ভুল প্রোডাক্ট বা বলা ভালো সম্পূর্ণ আলাদাই জিনিস ডেলিভারি হয়েছে দেখে স্বাভাবিকভাবেই ব্যক্তিটি ফ্লিপকার্টের কনজিউমার কেয়ার সেন্টারের সাথে যোগাযোগ করেন। সমস্ত ঘটনা জানানোর পর পাথর ফেরত নিয়ে অর্ডার করা ইনফিনিক্স মোবাইল পাঠানোর অনুরোধ করা হয়। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় কোম্পানি এই অনুরোধ গ্রহণ করতে অস্বীকার করে। এমনকি কুরিয়ার পার্টনারের সাথেও যোগাযোগ করা হয়। তারাও প্যাকেজটি ফেরত নিতে পারবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয়। শেষে ভুক্তভোগী সুবিচার পেতে ঘটনাটির পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ দিয়ে X প্ল্যাটফর্মে একটি পোস্ট করেন।

পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার পর, ফ্লিপকার্ট বাধ্য হয় বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নিতে। পরবর্তীতে জানা গেছে, ই-কমার্স পোর্টালটি এই ক্রেতার কাছে ক্ষমা চেয়েছে এবং একই সাথে অর্ডারের অর্থ শেয়ার করতে বলেছে। পাশাপাশি ফ্লিপকার্ট এই ঘটনাটি সামনে রেখে তাদের প্রত্যেক ক্রেতাদের জাল সেলার অ্যাকাউন্ট থেকে সতর্ক থাকার পরামর্শও দিয়েছে।

Nothing Phone 2a স্মার্টফোন অর্ডার করেও অনুরূপ অভিজ্ঞতার শিকার হন ক্রেতা

জানিয়ে রাখি, এরকম ঘটনা এর আগেও বহুবার ঘটেছে। হালফিলে কাশ্মীরে বসবাসকারী এক ক্রেতা Nothing Phone 2a অর্ডার করেছিলেন। যদিও ফোনের বদলে তাকে পাথর পাঠানো হয়নি। তবে ডেলিভারি করা হয়েছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি স্মার্টফোন। সাম্প্রতিক ঘটনার মতো এক্ষেত্রেও ফ্লিপকার্ট প্রোডাক্ট এক্সচেঞ্জ করতে অস্বীকার করে দিয়েছিল।