HMD Global বাজারে আনছে 108 মেগাপিক্সেল ক্যামেরার প্রথম ফোন, সামনে এল ছবি

১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সহ একটি নয়া স্মার্টফোনের উপর কাজ করছে HMD Global

Nokia-এর মালিক সংস্থা HMD Global নিজস্ব ব্র্যান্ডের অধীনে স্মার্টফোন লঞ্চ করার পরিকল্পনা করছে। আজ সংস্থার একটি নামবিহীন স্মার্টফোনের ছবি অনলাইনে খুঁজে পাওয়া গেছে। সদ্য প্রকাশ্যে আসা রেন্ডারে, স্মার্টফোনটির পিছনে ডুয়েল ক্যামেরা মডিউল লক্ষ্যণীয়। এই মডিউলের মধ্যে থাকা দুটি সেন্সর কাটআউটের ঠিক পাশেই আবার ‘108MP OIS’ টেক্সট নজরে পড়েছে। অর্থাৎ আপকামিং HMD হ্যান্ডসেটটি ‘অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন’ প্রযুক্তি সমর্থিত ১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর অফার করবে।

১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সহ একটি নয়া স্মার্টফোনের উপর কাজ করছে HMD Global

এইচএমডি গ্লোবালের আপকামিং স্মার্টফোনের প্রোডাক্ট সম্পর্কে জানিয়েছে ‘সুওমিমোবিলি’ (Suomimobiili) নামের একটি ফিনিশ অনলাইন প্রকাশনা সংস্থা। পাশাপাশি সংস্থাটি একটি লিংকও শেয়ার করেছে। যদিও বর্তমানে প্রদত্ত লিংকে ক্লিক করলে ‘URL 404’ এরোর দেখাচ্ছে। ফলে খবরটির সত্যতা নিয়ে কিছুটা হলেও অনিশ্চয়তা দেখা গেছে। তবে অনেকে বলেছে, হয়তো এইচএমডি গ্লোবালের কোনো কর্মকর্তা ভুলবশত আপকামিং হ্যান্ডসেটের টিজার ইমেজ অনলাইনে ফাঁস করেছে। যেকারণেই হয়তো ভুল বুঝে পরে পেজটি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফাঁস হওয়া রেন্ডারে দেখা যাচ্ছে, একজন মহিলা সায়ান কালারের স্মার্টফোনের উপর বসে আছেন। এই ফোনের ব্যাক প্যানেলে ‘HMD’ ব্র্যান্ডিং এবং ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এক্ষেত্রে আমরা আগেই বলেছি, ক্যামেরার মডিউলের মধ্যে “108MP OIS” ব্যাজিং দেখা গেছে। যা নিশ্চিত করছে, ডিভাইসটি অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন সমর্থিত ১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা সহ লঞ্চ হবে। যদিও সহায়ক সেন্সরের রেজোলিউশন জানা সম্ভব হয়নি।

মজার বিষয়, গত সপ্তাহেও ফাঁস হওয়া এইচএমডি স্মার্টফোনের প্রথম রেন্ডার এবং আজ প্রকাশ্যে আসা দ্বিতীয় রেন্ডারের মধ্যে খুব মিল রয়েছে। উভয় রেন্ডারেই ফোনটি ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা এবং অনুরূপ ক্যামেরা মডিউল ডিজাইন সহ দেখা গেছে। আবার ব্যাক প্যানেলের একই স্থানে ব্যান্ড লোগো লক্ষ্যণীয়।

জানিয়ে রাখি গত সপ্তাহে টিপস্টার ইভান ব্লাস (Evan Blass) X প্ল্যাটফর্মে এইচএমডি গ্লোবাল ব্র্যান্ডের প্রথম ব্যাচের স্মার্টফোনগুলির কোডনেম শেয়ার করেছিলেন৷ এগুলি হল – পালস (Pulse), কিংবদন্তি (Legend), পালস+ (Pulse+), লিজেন্ড প্লাস (Legend Plus), পালস প্রো (Pulse Pro), এবং লিজেন্ড প্রো (Legend Pro)। ফাঁস হওয়া স্মার্টফোনটি উপরিউক্ত কোডনেমগুলির মধ্যে একটি বহন করতে পারে।

এছাড়া জানা যাচ্ছে যে, এইচএমডি গ্লোবাল প্রাথমিক পর্যায়ে বাজেট এবং মিড-রেঞ্জ সেগমেন্টের অধীনে স্মার্টফোন লঞ্চ করার লক্ষ্য নিয়েছে। আসন্ন প্রত্যেকটি ফোন স্টক অ্যান্ড্রয়েড অভিজ্ঞতা অফার করবে। একই সাথে অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থার চেয়ে বেশি সংখ্যক ওএস আপডেটও রিলিজ করবে বলেও দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে।

HMD Global তাদের সমস্ত স্মার্টফোন ভারতে নির্মাণ করবে

এইচএমডি গ্লোবালের ভারতীয় শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং APAC রবি কুনওয়ার (Ravi Kunwar) সম্প্রতি, এইচএমডি তাদের আপকামিং স্মার্টফোনের জন্য ভারতকে অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার হিসেবে বিবেচিত করছে বলে জানিয়েছেন। যেকারণে সংস্থার পক্ষ থেকে, সমস্ত স্মার্টফোন ভারতেই স্থানীয়ভাবে ম্যানুফ্যাকচারিং করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এইচএমডি গ্লোবাল এক্ষুনি নোকিয়া-ব্র্যান্ডের স্মার্টফোনগুলিকে চিরতরে বিদায় জানাচ্ছে না৷ এক্ষেত্রে রবি কুনওয়ার জানিয়েছেন, এইচএমডি এবং নোকিয়া উভয় ব্র্যান্ডের অধীনেই স্মার্টফোন লঞ্চ করা হবে। তবে সংস্থা দুটি ভিন্ন প্রাইস সেগমেনেটের অধীনে ডিভাইস নিয়ে আসবে।