Homeমোবাইলদাম ১৬ হাজার টাকার কম, এই ৫টি 5G ফোনে পাবেন রকেটের মতো ডাউনলোড স্পিড

দাম ১৬ হাজার টাকার কম, এই ৫টি 5G ফোনে পাবেন রকেটের মতো ডাউনলোড স্পিড

রকেট গতির স্পিড পেতে ১৬,০০০ টাকার কমে কিনে নিন এই ৫টি দুর্দান্ত 5G স্মার্টফোন

গত অক্টোবর মাসের শুরুতে ভারতে রোলআউট হয়েছে 5G নেটওয়ার্ক, যার সুবাদে ইতিমধ্যেই দেশের বেশ কয়েকটি শহরের বাসিন্দারা Reliance Jio এবং Airtel-এর উচ্চগতির ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা পাচ্ছেন। সংস্থা দুটি জানিয়েছে যে, এই দুরন্ত গতির নেট পরিষেবা পেতে হলে ইউজারদের কাছে শুধুমাত্র একটি 5G সাপোর্টেড স্মার্টফোন থাকলেই চলবে। সেক্ষেত্রে এই ‘রকেটের’ গতির ইন্টারনেট সার্ভিস ব্যবহারের মজা উপভোগ করার জন্য আপনি যদি হালফিলে কোনো নামজাদা কোম্পানির পঞ্চম প্রজন্মের কানেক্টিভিটিযুক্ত একটি ব্র্যান্ড-নিউ হ্যান্ডসেট কেনার প্ল্যান করে থাকেন, তাহলে এই প্রতিবেদনে আপনার জন্য রয়েছে একটি দারুণ সুখবর। কারণ আজ আমরা ১৬,০০০ টাকার কমে কেনা যাবে, এমন ৫ টি দুর্দান্ত 5G স্মার্টফোনের কথা আপনাদেরকে জানাতে চলেছি।

১৬,০০০ টাকার কমে কিনে নিন এই ৫টি দুর্দান্ত 5G স্মার্টফোন

Moto G62

মোটো জি৬২-এর ৪ জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৫,৯৯৯ টাকা। ডুয়াল সিমের এই স্মার্টফোনে রয়েছে ৬.৫ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে, যার রেজোলিউশন ১০৮০x২৪০০ পিক্সেল, রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ এবং অ্যাসপেক্ট রেশিও ২০:৯। অক্টা-কোর Qualcomm SM4350-AC Snapdragon 480+ 5G (8 nm) প্রসেসর দ্বারা চালিত এই হ্যান্ডসেটটি অ্যান্ড্রয়েড ১৩ (Android 13)-এ কাজ করে। ক্যামেরার কথা বলতে গেলে, এই ফোনের পিছনে আছে এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা, এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর। এছাড়া, সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য ডিভাইসটির সামনে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা বিদ্যমান। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই স্মার্টফোনটিতে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে, যা ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে।

Samsung Galaxy M13 5G

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১৩ ৫জি স্মার্টফোনে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩ প্রোটেকশন সহ ৬.৫ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে আছে, যা ৭২০x১৬০০ পিক্সেল রেজোলিউশন, ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ৪০০ নিট পিক ব্রাইটনেস, এবং ২০:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিও অফার করে। অক্টা-কোর MediaTek MT6833 Dimensity 700 (7 nm) প্রসেসর দ্বারা চালিত এই স্মার্টফোনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। এছাড়া, ডিভাইসটিতে এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সরের দেখা মিলবে। স্মার্টফোনটির দুটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট মার্কেটে উপলব্ধ – ৪ জিবি + ৬৪ জিবি এবং ৬ জিবি + ১২৮ জিবি। আবার, পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য হ্যান্ডসেটটিতে রয়েছে ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টযুক্ত ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ (Android 12) ভিত্তিক ওয়ান ইউআই কোর ৪ (One UI Core 4)-এ কাজ করে। স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১৩ ৫জি-এর ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টটিকে পকেটস্থ করতে চাইলে খরচ পড়বে ১৩,৯৯৯ টাকা।

Samsung Galaxy M32

অ্যান্ড্রয়েড ১১ (Android 11) ভিত্তিক ওয়ান ইউআই ৩.১ (One UI 3.1) কাস্টম ওস দ্বারা চালিত স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩২-তে রয়েছে ৬.৫ ইঞ্চি টিএফটি এলসিডি ডিসপ্লে, যার রেজোলিউশন ৭২০x১৬০০ পিক্সেল, রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্টজ, এবং অ্যাসপেক্ট রেশিও ২০:৯। দ্রুত পারফরম্যান্সের জন্য ফোনটিতে অক্টা-কোর MediaTek Dimensity 720 প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। দুর্দান্ত ফটোগ্রাফির জন্য ডিভাইসটিতে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বিদ্যমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স, এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো শুটার ও এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল লাইভ ফোকাস লেন্স। এছাড়া, সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য ফোনের সামনে দেওয়া হয়েছে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ১৩ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা। স্যামসাংয়ের এই স্মার্টফোনে রয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ১টিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া যেতে পারে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই হ্যান্ডসেটে মিলবে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, যা ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩২-এর ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজ মডেলটির দাম ১৩,৪৯৯ টাকা।

iQOO Z6 5G

আইকোর এই ৫জি ফোনে রয়েছে ৬.৫৮ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে, যা ১০৮০x২৪০৮ পিক্সেল রেজোলিউশন, ২০:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিও এবং ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করে। ফাস্ট পারফরম্যান্সের জন্য ডিভাইসটিতে অক্টা-কোর Qualcomm SM6375 Snapdragon 695 5G (6 nm) প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ (Android 12) ভিত্তিক ফানটাচ ১২ (Funtouch 12)-এ কাজ করে। হ্যান্ডসেটটির তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট মার্কেটে উপলব্ধ – ৪ জিবি + ১২৮ জিবি, ৬ জিবি + ২৫৬ জিবি, এবং ৮ জিবি + ১২৮ জিবি। ক্যামেরার কথা বললে, আইকো জেড৬ ৫জি-এর পিছনে রয়েছে এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা, এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা, এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ ক্যামেরা। সেইসাথে সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এফ/২.০ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরাও দেওয়া হয়েছে এই স্মার্টফোনে। এছাড়া, পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই হ্যান্ডসেটে আছে ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টযুক্ত ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। আইকো জেড৬ ৫জি-এর ৪ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৪,৯৯৯ টাকা।

Vivo T1 5G

ভিভো টি১ ৫জি-এর ৪ জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি স্টোরেজ মডেলটি কিনতে হলে ক্রেতাদের ১৫,৯৯০ টাকা খসাতে হবে। এই ডিভাইসে রয়েছে ৬.৫৮ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে, যার রেজোলিউশন ১০৮০x২৪০৮ পিক্সেল, অ্যাসপেক্ট রেশিও ২০:৯ এবং রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ। অক্টা-কোর Qualcomm SM6375 Snapdragon 695 5G (6 nm) প্রসেসর দ্বারা চালিত এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ (Android 11) ভিত্তিক ফানটাচ ১২ (Funtouch 12)-এ কাজ করে। ফটোগ্রাফির জন্য ভিভো টি১ ৫জি ফোনের ব্যাক প্যানেলে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা সেন্সর, এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সর। সেইসাথে সেলফি এবং ভিডিও কলিংয়ের জন্য স্মার্টফোনটির সামনে এফ/২.০ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, ভিভোর এই হ্যান্ডসেটটিতে আছে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, যা ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে।

আরও পড়ুন