অনলাইনে অর্ডার করা প্রোডাক্টও এবার দেখেশুনে কেনার সুযোগ দিচ্ছে Samsung, ভারতে চালু হল O2O স্টোর

দক্ষিণ কোরিয়ার টেক জায়ান্ট Samsung ভারতের মাটিতে তাদের প্রথম ‘অনলাইন-টু-অফলাইন’ (O2O) লাইফস্টাইল স্টোর খুললো। এই রিটেল স্টোরটি মুম্বাইয়ের ‘বান্দ্রা কুরলা কমপ্লেক্স’ (BKC) -এর ‘জিও ওয়ার্ল্ড প্লাজা’ (Jio World Plaza) মলে অবস্থিত। এই স্টোর মোট ৮,০০০ বর্গফুট বিস্তৃত এলাকা জুড়ে, আটটি জোনে বিভক্ত।

সদ্য উন্মোচিত স্যামসাং রিটেল স্টোরে থেকে স্মার্টফোন, টেলিভিশন, রেফ্রিজারেটর, ওয়াশিং মেশিন সহ বিভিন্ন সেগমেন্টের হাই-এন্ড ইলেকট্রনিক্স প্রোডাক্ট বিক্রি করা হচ্ছে। সর্বোপরি, কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স এবং মোবাইল ডিভাইস ক্রেতাদের কেনাকাটার ক্ষেত্রে সেরা এআই অভিজ্ঞতা প্রদান করতে সংস্থাটি নিজস্ব ‘এআই ইকোসিস্টেম’ ব্যবহার করছে। আবার কেনাকাটার ক্ষেত্রে সহজতা নিয়ে আসার জন্য এখানে ইন-স্টোর সাপোর্টও পাওয়া যাবে। এই রিটেল স্টোরে একটি ডিজিটাল ক্যাটালগের মাধ্যমে উপলব্ধ ১,২০০টিরও বেশি প্রোডাক্টের বিস্তারিত তথ্য দেখার সুবিধা পাবেন ক্রেতারা।

উপরন্তু, মুম্বাইয়ের বাসিন্দারা স্যামসাংয়ের ওয়েবসাইট (Samsung.com/in) থেকে অনলাইনে প্রোডাক্ট ক্রয় করার পর তা বিকেসি ভিত্তিক O2O লাইফস্টাইল স্টোর থেকে মাত্র দুই ঘণ্টার মধ্যে তা সংগ্রহ করতে পারবেন। ফলে পেশাদারদের থেকে ডিভাইসের ডেমোস্ট্রেশনও হাতেনাতে পাওয়ার সুবিধা ভোগ করতে পারবেন ক্রেতারা।

আগেই বলেছি, O2O লাইফস্টাইল স্টোর মোট আটটি জোনে বিভক্ত। এই জোনগুলিতে – গেমিং থেকে শুরু করে হোম অ্যাপ্লায়েন্স, অফিস, আর্ট, ইয়োগা, কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স এবং লন্ড্রি ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত প্রোডাক্টের হ্যান্ডস-অন ডেমোস্ট্রেশন স্যামসাং ইকোসিস্টেমের মাধ্যমে দেওয়া হবে।

তবে সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, এই স্টোরে ‘লার্ন অ্যাট স্যামসাং’ (Learn at Samsung) ওয়ার্কশপ চালু করা হয়েছে। যার মাধ্যমে ক্রেতারা ডিজিটাল আর্ট, ফটোগ্রাফি, ফিটনেস, কুইসিন ইত্যাদি বিষয়ক স্যামসাংয়ের নয়া উদ্ভাবনী সম্পর্কে জানতে পারবেন। এই ওয়ার্কশপে টেক ইনফ্লুয়েন্সার এবং পেশাদার বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত থাকবেন, যারা প্রদর্শিত স্যামসাং ডিভাইসগুলির কার্যকারিতা সম্পর্কে দর্শকদের জানাবেন। এমনকি হ্যান্ডস-অন ডেমোস্ট্রেশনও অফার করবেন।

O2O লাইফস্টাইল স্টোরে ‘মোবাইল জোন’ (Mobile Zone) নামেরও একটি স্বতন্ত্র সেকশন আছে। যেখানে লেটেস্ট লঞ্চ ফ্ল্যাগশিপ হ্যান্ডসেট, যেমন – Galaxy S24 সিরিজ সহ যাবতীয় জনপ্রিয় গ্যালাক্সি-সিরিজের ডিভাইসগুলি প্রদর্শন করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি, লেটেস্ট এস-সিরিজের মোবাইল কিনতে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা এই স্টোরের মাধ্যমে পছন্দের মডেল প্রি-বুক করতে পারবেন।

এই স্টোরের আরেকটি নজরকাড়া বৈশিষ্ট্য হল, এখানে থাকা ‘ক্রিয়েটর’স ওয়ার্কশপ’ (Creator’s Workshop) থেকে ক্রেতারা তাদের কেনা ডিভাইসগুলি পার্সোনালাইজ করাতে পারবেন। আরো সহজ করে বললে, এই ওয়ার্কশপে স্মার্টফোনের কভার তৈরি করা, ফোন কেসে ক্রিস্টাল দিয়ে আদ্যক্ষর খোদাই করা এবং গ্যালাক্সি-সিরিজের স্মার্টওয়াচের জন্য মজাদার চার্ম তৈরী করানো যাবে।

সবথেকে মজার বিষয় হল, স্যামসাং তাদের এই বিকেসি-ভিত্তিক রিটেল স্টোরের মাধ্যমে এমনসব গ্লোবাল প্রোডাক্টের প্রথম ঝলক দেখার সুযোগ করে দেবে যা এখনও ভারতে লঞ্চ হয়নি। স্টোরটিতে একটি ইন্টিগ্রেটেড পরিষেবা কেন্দ্রও রয়েছে, যা – অনলাইন ও অফলাইন অ্যাপয়েন্টমেন্ট, গ্যালাক্সি ডিভাইসগুলির জন্য সেম-ডে রিপেয়ারিং, এবং বিনামূল্যে স্মার্টথিংস সেটআপ করার মতো সুযোগ-সুবিধা অফার করে। যার মধ্যে তৃতীয় সুবিধাটি শুধুমাত্র সেইসকল ক্রেতাদের জন্যই উপলভ্য যারা একাধিক স্মার্টথিংস-এনাবল প্রোডাক্টস কিনবেন। এছাড়াও – লয়ালটি পয়েন্ট, নির্বাচিত প্রোডাক্টের উপর ছাড়, নির্বাচিত অ্যাপ্লায়েন্সের সাথে ক্যাশব্যাক এবং কর্পোরেট ক্লায়েন্টদের জন্য বিশেষ সুবিধাও পাওয়া যাবে স্যামসাং O2O লাইফস্টাইল স্টোরে।