শুধু লখনউ সুপার জায়েন্টস নয়, এই তিনটি দলও ২০২৫ আইপিএলে নতুন অধিনায়কের খোঁজে থাকবে

Published on:

three-teams-apart-from-lsg-that-will-search-for-a-new-captain-in-ipl-2025

আইপিএল ২০২৪-এর (IPL 2024) খেলা হচ্ছে ভিন্ন মাত্রায়। প্রথমবার ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসের তিন বড় খেলোয়াড় মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলি এবং রোহিত শর্মা অধিনায়কত্বের বাইরে ছিলেন, অন্যদিকে আইপিএল ২০২৫ এর আগে একটি মেগা নিলাম হবে। আগামী ১০ বছর দলগুলো নিজেদের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করবে। পাঞ্জাব কিংস ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স প্লে অফের দৌড় থেকে ছিটকে গেলেও কিছু দল দাঁড়িয়ে আছে সীমান্তে। এদিকে, সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে ১০ উইকেটের লজ্জাজনক পরাজয়ের পরে মালিক সঞ্জীব গোয়েঙ্কার ক্রোধের মুখোমুখি হতে হয়েছিল লখনউ সুপার জায়ান্টস অধিনায়ক কেএল রাহুলকে (KL Rahul)। তাই রাহুল পরেরবার এই দল‌ ছেড়ে অন্যদলে যেতে চলেছে, এই নিয়ে খবর ইতিমধ্যেই উঠে এসেছে।

মাঠে যেখানে কেএল রাহুলকে প্রকাশ্যে তিরস্কার করা হচ্ছে, যেখানে ক্রিকেট মহল এবং ভক্তরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন, অন্যদিকে খবরটি বিশ্বাস করতে গেলে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের অধিনায়কত্ব থেকে বিদায় নিশ্চিত। পরের ম্যাচের আগেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। লখনউ সুপার জায়ান্টসের খবর যদি সত্যি হয়, তাহলে এই মরশুমে বা শেষ হওয়া মাত্রই কেএল রাহুলের পাতা কেটে ফেলা হতে পারে। তারা ছাড়াও অনেক দলই আছে সময়ের অপেক্ষায়। মরসুম শেষ হলেই পরবর্তী পরিকল্পনা নিয়েও কাজ শুরু করবেন তারা।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স (Mumbai Indians)- মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে এমন একটি দল হিসাবে বিবেচনা করা হত যারা আইপিএল ২০২৪ পর্যন্ত খেলোয়াড়ের উপর আস্থা রেখেছিল। তবে রোহিত শর্মাকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর হার্দিক পান্ডিয়াকে নেতার চেয়ারে বসানো হলেও পুরো বিষয়টি মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সমর্থকদের শুধু ক্ষুব্ধই করেনি, খেলোয়াড়দের মধ্যে সমন্বয়ও দেখাতে পারেনি। হার্দিকের অধিনায়কত্বে দলের লোকজন খুশি নয় বলেও গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছিল। এখন দল প্লে অফের দৌড় থেকে ছিটকে যাওয়ায় সম্ভবত মুম্বই মালিকরা হার্দিক পান্ডিয়াকে পুনর্বিবেচনা করছেন। ফ্র্যাঞ্চাইজির পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে তা দেখতে আকর্ষণীয় হবে।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু (Royal Challengers Bangaluru) – চেন্নাই সুপার কিংস থেকে ফাফ ডু প্লেসিস যখন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরে পৌঁছান, তখন বিরাট কোহলির জায়গায় তাকে অধিনায়ক করা হয়েছিল, তবে এখনও পর্যন্ত দলের পারফরম্যান্সে কোনও প্রভাব পড়েনি। দলটি এখনও প্রথম আইপিএল শিরোপার জন্য লড়াই করছে, অন্যদিকে ফাফ ডু প্লেসিসের সমবয়সী এবি ডি ভিলিয়ার্স অবসর নিয়েছেন। এখন যেহেতু দলকে আগামী ১০ বছরের জন্য শক্তিশালী দল প্রস্তুত করতে হবে, তাই সম্ভবত ফ্র্যাঞ্চাইজিটি পরবর্তী অধিনায়ক হিসেবে অন্য কাউকে চেষ্টা করবে। আইপিএলের মেগা নিলামের আগেই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

পাঞ্জাব কিংস (Punjab Kings)- শিখর ধাওয়ান যখন আইপিএল ২০২৪-এ এসেছিলেন, তখন তার ফর্ম নিয়ে কোনও সমস্যা ছিল না। দিল্লির বিপক্ষে ২২, বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ৪৫ ও লখনউয়ের বিপক্ষে ৭০, গুজরাট ও হায়দরাবাদের বিপক্ষে যথাক্রমে ১ ও ১৪ রান করেন তিনি। শিখর ধাওয়ান এখানে চোট পেয়েছিলেন এবং তারপর থেকে দলের সাথে খেলেননি। এদিকে পাঞ্জাব কিংস রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের কাছে লজ্জাজনক হারের পর প্লে অফের দৌড় থেকে ছিটকে গেছে প্রীতি জিন্টার দল। এই সময় অধিনায়কত্ব করছিলেন স্যাম কারান। মনে করা হচ্ছে পরেরবার নতুন অধিনায়কের খোঁজে নামবে তারা।

সঙ্গে থাকুন ➥