Flipkart থেকে iPhone 15 কিনে ফের ঠকলেন ক্রেতা, পেলেন ত্রুটি যুক্ত ফোন

অজয় রাজাওয়াত নামের এক ক্রেতা ফ্লিপকার্টের রিপাবলিক ডে সেলে iPhone 15 অর্ডার করেন

বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষই অনলাইন কেনাকাটায় অভ্যস্ত হয়ে উঠেছে। তবে, অনলাইন কেনাকাটা যে সব সময় ভালো অভিজ্ঞতা প্রদান করে তা কিন্তু নয়। কখনো কখনো অনলাইন কেনাকাটার ফলে মানুষকে নানান সমস্যায় পড়তেও হয়। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে, যেখানে একজন ক্রেতা Flipkart থেকে ত্রুটি যুক্ত iPhone 15 ডেলিভারি পেয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ কিছু স্ক্রিনশট এবং একটি আনবক্সিং ভিডিও পোস্ট করার পরই ভাইরাল হয়ে যায় এই খবরটি।

অজয় রাজাওয়াত নামের এক ক্রেতা ফ্লিপকার্টের রিপাবলিক ডে সেলে iPhone 15 অর্ডার করেন এবং ১৫-ই জানুয়ারি ওই ক্রেতা ফোনটির ডেলিভারি পাওয়ার পর বাক্স খুলে দেখেন তার কাছে একটি ত্রুটিপূর্ণ আইফোন পৌঁছেছে।

এরপর তিনি ফ্লিপকার্টে একটি অভিযোগ করেন এবং একটি ভিডিও সহ কিছু স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল এক্স-এ পোস্ট করেন। আর সেখানে দেখা যায় তিনি ‘ওপেন বক্স ডেলিভারি’ প্রটোকলের অধীনে ডেলিভারি ম্যানের সামনেই বাক্সটি খোলেন। কিন্তু তখন আইফোনের ব্যাটারি সেকশনে একটি বার্তা লক্ষ্য করা যায়। আর সেই বার্তায় উল্লেখ করা রয়েছে যে, এই আইফোনের ব্যাটারিটি অথেন্টিক কিনা সেটি যাচাই করা অসম্ভব। আর ব্যাটারির স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্য উপলব্ধ নয়।

এই ঘটনার পর ফ্লিপকার্ট সেই ক্রেতা অভিযোগের প্রতিক্রিয়া হিসেবে সমস্যাটি স্বীকার করে নেয় এবং তাকে সমস্ত রকম ভাবে সহায়তা করার প্রতিশ্রুতিও দেয়। তাছাড়া, ফ্লিপকার্ট একটি বিবৃতিতে ক্রেতার এই অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতার জন্য দুঃখও প্রকাশ করে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি কোচির এক বাসিন্দা এম কে সতিস নামের এক ব্যক্তিও একই রকম অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছিলেন। যেখানে তিনি ফ্লিপকার্ট থেকে ওয়ানপ্লাস-এর প্রিমিয়াম স্মার্টফোন OnePlus 11 5G কিনে বিপাকে পড়েছিলেন। কারণ, তিনি নতুন ডিভাইসের পরিবর্তে একটি ব্যবহৃত ডিভাইস পেয়েছিলেন। যার জন্য সতীশ ডেলিভারি চার্জসহ মোট ৫৩,০৯৮ টাকা পেমেন্টও করেছিলেন।