Firefox: মোবাইল বা ল্যাপটপে এই ব্রাউজার ব্যবহার করেন? রেড অ্যালার্ট জারি করল সরকার

'ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম' ওরফে CERT-In সম্প্রতি সকল ভারতীয় Firefox ব্রাউজার ব্যবহারকারীদের জন্য জরুরীকালীন সতর্কতা জারি করেছে।

বর্তমানে ভারত সহ বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রাইমারি ব্রাউজার হিসাবে Google Chrome ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এখনো স্বল্প সংখ্যক কিছু মানুষ আছেন যারা Firefox ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহারে অভ্যস্ত। আপনিও যদি এই গোনাগুনতি মানুষদের একজন হয়ে থাকেন তবে সতর্ক হয়ে যান! কেননা ‘ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম’ ওরফে CERT-In সম্প্রতি সকল ভারতীয় Firefox ব্রাউজার ব্যবহারকারীদের জন্য জরুরীকালীন সতর্কতা জারি করেছে।

আসলে এই ভারতীয় সাইবার-সিকিউরিটি টিম, Firefox ব্রাউজারে একাধিক ত্রুটি বা দুর্বলতা খুঁজে পেয়েছে। যেগুলি ব্যবহার করে হ্যাকাররা দূরবর্তী স্থান থেকেও ডিভাইসে ম্যালওয়্যার যুক্তকোড পাঠানোর পাশাপাশি, ব্যক্তিগত ডেটা চুরি করা, নিরাপত্তাজনিত বিধিনিষেধ বাইপাস করা এবং প্রভাবিত সিস্টেমের যাবতীয় সার্ভিস ডিজেবল করার মতো কাজ করতে সক্ষম হবে। অতএব Firefox ব্যবহারকারীদের জন্য বিষয়টি খুবই চিন্তার!

CERT-In দ্বারা প্রকাশিত একটি সাম্প্রতিক নির্দেশিকা অনুসারে, সদ্য আবিষ্কৃত ত্রুটি বা দুর্বলতাগুলির দ্বারা 124 -এর আগের ফায়ারফক্স সংস্করণ এবং 115.9 -এর পুরোনো ফায়ারফক্স ইএসআর সংস্করণগুলি প্রভাবিত হয়েছে৷ এছাড়া 115.9 -এর পূর্ববর্তী মজিলা থান্ডারবার্ড (Mozilla Thunderbird) সংস্করণও সমানভাবে প্রভাবিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

আর উক্ত সাইবার সিকিউরিটি ফার্মটি তাদের সাম্প্রতিক সিকিউরিটি নোটে বলেছে যে, উইন্ডোজ এরর রিপোর্টের কারণে মজিলা ব্রাউজারে একাধিক দুর্বলতা বিদ্যমান। এই দুর্বলতাগুলি বিভিন্ন অসৎ কাজ সম্পন্ন করার জন্য বিভিন্নভাবে ব্যবহার করতে পারে হ্যাকাররা। উদাহরণস্বরূপ, ব্যবহারকারীদের বৈধ ওয়েবসাইটের ছদ্মবেশে ম্যালিশিয়াস বা ক্ষতিকারক ওয়েবসাইটে পাঠাতে পারে। এর ফলে নেপথ্যে থাকা হ্যাকার ডিভাইসের অননুমোদিত অ্যাক্সেস পেয়ে যাবেন এবং তথ্য চুরি করা বা সিস্টেম ক্র্যাশ করতে কোডিং ব্যবহার করতে পারবে। যার দরুন হ্যাকারদের জন্য প্রতারণা করা আরো সহজ হয়ে যাবে।

CERT-In, সমস্ত ভারতীয় মজিলা ফায়ারফক্স ব্রাউজার ব্যবহারকারীদের এই ধরণের ক্ষতিকারক ত্রুটি থেকে সুরক্ষিত থাকার জন্য কয়েকটি জিনিস মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে। নীচে এই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল –

  • লেটেস্ট সফ্টওয়্যার ভার্সন ইনস্টল করুন: আমরা আগেই বলেছি, ফায়ারফক্স ব্রাউজারে আবিষ্কৃত দুর্বলতাগুলির জন্য একাধিক অযাচিত ঘটনা ঘটতে পারে। ফলে নিরাপদ থাকতে উক্ত ব্রাউজারের লেটেস্ট সংস্করণটি ডিভাইসে ইন্সটল করতে হবে। কেননা লেটেস্ট আপডেটের সাথে সিকিউরিটি প্যাচ অন্তর্ভুক্ত করা থাকে, যা দুর্বলতাগুলি চিহ্নিত করতে এবং সিস্টেমের নিরাপত্তা বাড়াতে সাহায্য করে।
  • অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার ব্যবহার করুন: ডিভাইসকে যেকোনো প্রকারের সাইবার আক্রমণ থেকে সুরক্ষিত রাখতে অবশ্যই একটি বৈধ অ্যান্টিভাইরাস এবং অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার সফ্টওয়্যার ব্যবহার করুন। এই ধরণের সফ্টওয়্যার সম্ভাব্য সাইবার আক্রমণ শনাক্ত এবং প্রতিরোধ করতে সক্ষম।
  • ব্রাউজিং সতর্কতা: ইন্টারনেট ব্রাউজ করার সময় অধিক সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। অপরিচিত বা সন্দেহজনক ওয়েবসাইট পরিদর্শন করার থেকে বিরত থাকুন। অবিশ্বস্ত উৎস থেকে আসা লিংকে ক্লিক করবেন না।
  • সন্দেহজনক গতিবিধি রিপোর্ট করুন: ফায়ারফক্স ব্রাউজার ব্যবহারকারীরা যদি নিজেদের ডিভাইসে কোনো সন্দেহজনক কার্যকলাপ দেখতে পান, তবে অবিলম্বে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বা সাইবার সিকিউরিটি রেসপন্স টিমের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে রিপোর্ট করুন।