বিপদ ডেকে আনছে AI, সহপাঠীর নগ্ন ছবি বানিয়ে গ্রেফতার দুই স্কুল ছাত্র

ফ্লোরিডার দুই স্কুল ছাত্রকে ডিসেম্বরে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কারণ, তারা তাদের সহপাঠীদের এআই জেনারেটেড নগ্ন ছবি তৈরি করেছে।

যদিও এখন আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (AI) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে কোনো নতুন আবিষ্কার বলা যায় না। কারণ, দীর্ঘদিন আগেই ChatGPT-এর মত প্রযুক্তি সবার জন্য উপলব্ধ আছে। পাশাপাশি Dall.E এবং Midjourney-এর মতো অন্যান্য এআই টুল ব্যবহারকারীর সংখ্যাও খুব দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। আর AI আবিষ্কারের পর থেকেই এই টুলগুলি ব্যবহার করে মানুষ নতুন প্রযুক্তির শক্তি নিয়ে নানান পরীক্ষা নিরীক্ষা করাও শুরু করেছে।

যদিও, ChatGPT এবং Google-এর Gemini-র মতো টুলগুলি মানুষের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া, বিভিন্ন লিখিত কাজ করা, এআই ইমেজ জেনারেটর করা অথবা কোনো পাঠ্য থেকে ছবি তৈরি করার মতো কাজের জন্যই ব্যবহার করা হতো। তবে এআই জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর নানাভাবে মানুষ এই প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করেছে।

আসলে যখন কোনো নতুন জিনিস আবিষ্কার হয়, তখন তার যেমন ভালো দিক থাকে, ঠিক তেমনই তার কিছু খারাপ দিকও থাকে। একইভাবে এআই প্রযুক্তি ব্যবহার করে যেমন সৃজনশীল কাজ করা যায়, ঠিক একই ভাবে এর সাহায্যে বিপদজনক বা ক্ষতিকারক কাজও করা যায়।

ওয়্যার্ড-এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, ফ্লোরিডার দুই স্কুল ছাত্রকে ডিসেম্বরে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কারণ, তারা তাদের সহপাঠীদের এআই জেনারেটেড নগ্ন ছবি তৈরি করেছে। রিপোর্ট অনুসারে, ১৩ এবং ১৪ বছর বয়সী ওই দুই কিশোরকে সহপাঠীর এআই জেনারেটেড ছবি তৈরি করার অভিযোগে ২০২২ সালে প্রণীত রাজ্যের নতুন আইনের অধীনে অভিযুক্ত ও গ্রেপ্তার করা হয়। যে আইন অনুযায়ী, পুরুষ এবং মহিলা নির্বিশেষে কারোর সম্মতি ছাড়া এআই জেনারেটেড ছবি তৈরি করা এবং বিতরণ করা একটি দন্ডনীয় অপরাধ বলে গণ্য করা হবে।

সিবিএস নিউজের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, এটি কোনো প্রথম ঘটনা নয়। কারণ, এর আগেও গত বছরের নভেম্বরে নিউ জার্সির একটি বিদ্যালয়ের কিছু ছাত্র তাদের সহপাঠীদের পর্নোগ্রাফি ছবি তৈরি করার অভিযোগে অভিযুক্ত হয়।