মিশে যাচ্ছে Ola Uber? কি জানালো দুই সংস্থার সিইও

Published on:

ola-and-uber-merging-ceo-refuse-here-is-what-we-know-so-far

অন্যতম দুটি অ্যাপ ক্যাব সংস্থা Ola এবং Uber -এর সম্ভাব্য একীভূত (merge) হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসতেই যথেষ্ট হৈচৈ পড়ে গিয়েছিল ভারতীয়দের মধ্যে। কিন্তু সম্প্রতি Ola-র সিইও ভাবীশ আগরওয়াল তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থা Uber -এর সাথে ‘মার্জ’ হওয়ার এই খবরকে রটনা বলে সম্পূর্ণ নাকচ করে দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, প্রায় অর্ধ দশকেরও বেশি সময় ধরে আলোচ্য দুটি সংস্থা ভারতে একে অপরের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। কিন্তু সম্প্রতি ভাবীশ আগরওয়াল সান ফ্রান্সিসকোতে Uber -এর শীর্ষ আধিকারিকদের সাথে সাক্ষাৎকারে সম্ভাব্য সংযুক্তি নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল। এমনকি রিপোর্টটিতে আরো যোগ করা হয়েছিল যে, এরূপ উদ্যোগ এই প্রথমবার নয়, বরং এর আগেও একবার নেওয়ার জন্য উদ্যত হয়েছিল সংস্থা দুটি। যদিও তখন এই চুক্তিটি বাস্তবায়িত হয়নি। মনে করা হচ্ছে প।, উভয় সংস্থার বার্ষিক রেভেনিউ হ্রাসপ্রাপ্ত হওয়ার কারণে তারা একীভূত বা ‘মার্জ’ হওয়ার কথা বিবেচনা করছে। যদিও Ola এবং Uber সতন্ত্র ভাবেই জানিয়ে দিয়েছে যে এই খবর শুধুই গুজব মাত্র, যা বাস্তবায়িত হওয়া কখনোই সম্ভব নয়।

মার্জ হওয়ার খবর অস্বীকার করলো Ola এবং Uber কর্তৃপক্ষ

ইকোনমিক টাইমসের একটি সাম্প্রতিক রিপোর্টে, ওলা এবং উবার সংস্থা দুটি একীভূত বা মার্জ হওয়ার বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করছে বলে দাবি করা হয়েছিল। যার প্রত্যুত্তরে ওলা সংস্থার সিইও ভাবীশ আগরওয়াল টুইটারে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে, “এই খবর গুজব বাদে আর কিছুই নয়। আমরা খুবই ভালো মুনাফা অর্জন করেছি এবং ব্যবসার পরিসরও বাড়ছে। যদি অন্য কোনো কোম্পানি ভারত থেকে তাদের ব্যবসা উঠিয়ে দিতে চায়, তাহলে তাদের স্বাগত জানাই! তবে আমরা উবারের সাথে কখনই একীভূত হব না।”

অন্যদিকে উবার কর্তৃপক্ষের মুখেও একই সুর শোনা গেছে, অর্থাৎ তারাও ওলার সাথে একীভূত হওয়ার কথা অস্বীকার করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক জায়ান্টটির মন্তব্যে, “প্রতিবেদনে প্রদত্ত তথ্য সম্পূর্ণ ভুল। আমরা ওলার সাথে মার্জ হওয়া নিয়ে কখনোই আলোচনা করিনি এবং করছিও না।”

ভারতে আলোচ্য এই দুটি পরিবহন সংস্থার মধ্যে সর্বদা চলমান প্রতিযোগিতার কথা কারোরই অজানা নেই। তবে চার বছর আগে গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল যে, ওলা এবং উবার সংস্থার এক ‘কমন’ বিনিয়োগকারী অর্থাৎ সফ্টব্যাঙ্কের কর্ণধার মাসায়োশি সন সংস্থা দুটিকে একীভূত হওয়ার জন্য চাপ দিলে, তারা এই বিষয়ে আলোচনায় বসে। যদিও চুক্তিটি তখন বাস্তবায়িত হতে পারেনি।

যাইহোক, ওলা এবং উবার তাদের গ্রাহকদের জন্য ইনসেনটিভ এবং ডিসকাউন্ট প্রদানের উদ্দেশ্যে এযাবৎ লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করেছে। কিন্তু এত কিছুর পরেও, দুটি সংস্থার কোনটিই নজরে পড়ার মতো রেভেনিউ বৃদ্ধি প্রত্যক্ষ করেনি। এমনকি, আশানুরূপ মুনাফা লাভ না করায় উবার তাদের ফুড ডেলিভারি ব্যবসা ‘উবার ইটস’ (Uber Eats) -কে ২০২০ সালে জোমাটো (Zomato) -এর কাছে বিক্রি করতে বাধ্য হয়। আর, ওলা তাদের গ্রোসারি সরবরাহের ব্যবসা বন্ধ করে দিয়ে, এখন ইলেকট্রিক মোবিলিটি (EV) ব্যবসায় বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এক্ষেত্রে, ওলা বর্তমানে তাদের পরিবহন ব্যবসার সাথে জড়িত ১,০০০ জন কর্মীকে ছাঁটাই করার পরিকল্পনা করছে বলে জানা গেছে। তবে বিপরীতে, সংস্থাটি তাদের ইভি (EV) ব্যবসার জন্য কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া চলমান রেখেছে এমন খবরও শুনতে পেয়েছি আমরা।

এই বিষয়ে সংস্থার সাথে যুক্ত এক কর্মকর্তার মন্তব্য, “ওলা শুধুমাত্র গাড়ি এবং অতিরিক্ত সেল ডেভেলপমেন্টের জন্যই প্রায় ৮০০ জন কর্মীকে নিয়োগ করার পরিকল্পনা করছে। যদিও তারা এখন বহু কর্মচারীদের বরখাস্তও করছে। তবে নিয়োগ প্রক্রিয়া এরই সমান্তরালে চলমান থাকছে, ফলে অনেক নতুন কর্মী সংস্থায় আসছে। এটি সংস্থার জন্য কস্ট-কাটিং প্রক্রিয়া নয় বরং একটি খরচ কমানোর পন্থা স্বরূপ।”

সঙ্গে থাকুন ➥