Tata Motors: মধ্যবিত্তের মুখে হাসি ফুটিয়ে গাড়ির দাম 1.20 লক্ষ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত নিল টাটা

এই দুর্মূল্যের বাজারে কোন জিনিসে অল্প কিছু ছাড় মিললেই ক্রেতাদের চোখেমুখে খুশির ঝলক ফুটে ওঠে। ফেব্রুয়ারিতে আবার বেশিরভাগ গাড়ি কোম্পানি তাদের জনপ্রিয় মডেলে লোভনীয় ডিসকাউন্ট দিচ্ছে। তাই এই মাসে বহু ক্রেতা গাড়ি কেনার লম্বা লাইনে দাঁড়াচ্ছেন। ক্রেতাদের উন্মাদনা কয়েকগুণ বাড়িয়ে সুখবর শোনালো টাটা মোটরস (Tata Motors)। সংস্থার একজোড়া ইলেকট্রিক ভেহিকেলের ১.২০ লাখ টাকা দাম কমিয়েছে সংস্থা। এই তালিকায় আছে – Tata Tiago EV ও Nexon EV।

Tata Motors-এর দুই ইভি গাড়ির মূল্য হ্রাস

প্রশ্ন জাগতে পারে, একলাফে এতটা দাম কমানোর কারণ কী? আসলে আন্তর্জাতিক বাজারে ব্যাটারি সেলের মূল্য হ্রাসের প্রভাব পড়েছে এদেশেও। যে কারণে এই অতি জনপ্রিয় ব্যাটারি মডেল দুটিও সস্তা হয়েছে। নেক্সন ইভি এর বেস মিডিয়াম রেঞ্জ ভার্সনের দাম ২৫,০০০ টাকা কমে বর্তমানে ১৪.৪৯ লক্ষ টাকা থেকে শুরু হচ্ছে। আবার এন্ট্রি লেভেল লং রেঞ্জ নেক্সন ইভি কিনতে এখন খরচ পড়বে ১৬.৯৯ লাখ টাকা (এক্স-শোরুম)। দাম কমেছে ১.২০ লাখ টাকা।

এদিকে Tata Tiago EV-র দাম ৭০,০০০ টাকা কমে এখন হয়েছে ৭.৯৯ লাখ টাকা (এক্স-শোরুম)। তবে এই লাইনআপের অন্যান্য মডেলের দাম কমানো হয়েছে কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। শীঘ্রই গাড়ি দুটির সমস্ত ভ্যারিয়েন্টের নতুন মূল্য প্রকাশ করবে টাটা। জানিয়ে রাখি, সংস্থার অন্যান্য ইভি মডেলে এই মূল্য হ্রাসের প্রভাব পড়বে না। যেমন Punch EV ও Tiago EV।

মূল্য হ্রাসের প্রসঙ্গে টাটা প্যাসেঞ্জার ইলেকট্রিক মোবিলিটির মুখ্য কমার্শিয়াল আধিকারিক বিবেক শ্রীবাস্তব বলেছেন, “একটি ইলেকট্রিক ভেহিকেলের দামের বিশেষ অংশ জুড়ে থাকে এর ব্যাটারির মূল্য। ব্যাটারি সেলের দাম সস্তা হওয়ার ফলে মূল্যে এই পতন ঘটেছে।” প্রসঙ্গত টাটা নেক্সন ইভি-র প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বাজারে রয়েছে – Mahindra XUV400। এটির বর্তমান মূল্য ১৭.৪৯ লক্ষ টাকা।

এখন ভারতের সবচেয়ে সস্তার ইলেকট্রিক ভেহিকেল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে MG Comet EV। কিছুদিন আগেই এমজি মোটর তাদের এই মডেলটির দাম ১.৭০ লক্ষ টাকা কমিয়েছে। ফলে বর্তমানে এটি কিনতে খরচ পড়বে ৬.৯৯ লক্ষ টাকা। সেখানে এর প্রতিপক্ষ হিসাবে Tiago EV-র দাম এর চাইতে এক লাখ বেশি।