Smartphone: ২০২৩ সালের স্মার্টফোন হবে আরও দমদার, ক্যামেরা থেকে সব কিছু হবে দুর্দান্ত

ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে ২০২৩ সালেও স্মার্টফোনে নানাবিধ কার্যকর ফিচারের দেখা মিলবে বলে সম্প্রতি জানা গিয়েছে

Smartphone New Technologies 2023

বিগত কয়েক বছরে মোবাইল ফোনের দুনিয়ায় ব্যাপক পরিবর্তন ঘটে গেছে। এই ছোট্ট ইলেকট্রনিক গ্যাজেটটি এখন আর শুধু ফোন কল করার মাধ্যম নয়, বরঞ্চ স্মার্টফোনরূপে এটি কাজের প্রয়োজনে কিংবা অবসর সময় কাটানোর জন্য বর্তমান ডিজিটাল যুগের বাসিন্দাদের দৈনন্দিন জীবনের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গে পরিণত হয়েছে। তাই ইউজারদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রায়শই এই ডিভাইসটিতে হরেক রকমের পরিবর্তন আনছেন নির্মাতারা। উদাহরণস্বরূপ – গোড়ার দিকে স্মার্টফোনগুলি খুব মৌলিক কিছু ফিচার অফার করতো। তবে এখন ছবিটা পুরোপুরিভাবে পাল্টে গিয়েছে। ইদানীংকালে গ্রাহকদের হাতে নজরকাড়া ডিজাইন এবং একগুচ্ছ কার্যকর ফিচারে ঠাসা বিভিন্ন রেঞ্জের স্মার্টফোনের দেখা মেলে। উপরন্তু, ইউজারদেরকে আকর্ষিত করতে স্মার্টফোনে নিত্যনতুন পরিবর্তন আনার জন্য অহরহ পরিশ্রম করে চলেছে নির্মাতা সংস্থাগুলি। এর সুবাদে এখন ফোনে এমন শক্তিশালী ক্যামেরা পাওয়া যাচ্ছে, যা ডিএসএলআর (DSLR)-কেও হার মানায়। আবার, উন্নত প্রযুক্তির সহায়তায় হালফিলে নিমেষেই ফুল চার্জ হয়ে যাচ্ছে হ্যান্ডসেট। সেক্ষেত্রে ২০২২ সাল পর্যন্ত তো এরকম একাধিক আকর্ষণীয় ফিচারের দেখা মিলেছেই, আবার ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে ২০২৩ সালেও স্মার্টফোনে নানাবিধ কার্যকর ফিচারের দেখা মিলবে বলে সম্প্রতি জানা গিয়েছে৷ এই প্রতিবেদনে আমরা আপনাদেরকে এমনই কিছু চমকপ্রদ ফিচারের কথা জানাতে চলেছি, যেগুলি ২০২৩ সালে মার্কেটে উপলব্ধ হ্যান্ডসেটে পেতে সক্ষম হবেন ব্যবহারকারীরা।

২০২৩ সালে বিভিন্ন স্মার্টফোনে মিলবে এই সকল চমকপ্রদ তথা কার্যকর ফিচার

iPhone-এ শক্তিশালী ক্যামেরা থাকবে:

আইফোনের ক্যামেরার গুণমান সম্পর্কে নতুন করে আর কাউকে কিছু বলার কোনো প্রয়োজন পড়ে না। উল্লেখ্য যে, ২০২২ সালে বাজারে আসা আইফোনে দেওয়া হয়েছে ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। লেটেস্ট আইফোন ১৪ (iPhone 14) সিরিজের প্রো (Pro) মডেলগুলিতে এই ক্যামেরা সেটআপ উপস্থিত রয়েছে। তবে এখন আশা করা হচ্ছে, ২০২৩ সালে লঞ্চ হওয়া সব আইফোন মডেলে থাকবে ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সত্যিই যদি এমনটা হয়, তাহলে আসন্ন আইফোন ১৫ (iPhone 15) সিরিজের বেস মডেলেও এই ক্যামেরা সেটআপের দেখা মিলবে।

২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং:

এখনও পর্যন্ত ভারতের মার্কেটে সর্বাধিক ১৫০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং স্মার্টফোনের আবির্ভাব ঘটেছে। তবে সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে, আগামী দিনে কয়েকটি কোম্পানি ২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টসহ স্মার্টফোন লঞ্চ করতে পারে। সবচেয়ে বড়ো কথা হল, সাশ্রয়ী মূল্যের ফোনেও এই প্রযুক্তি উপলব্ধ হবে বলে খবর মিলেছে, যা এককথায় অবিশ্বাস্য।

২০০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা:

২০২২ সাল পর্যন্ত অ্যান্ড্রয়েড (Android) স্মার্টফোনে সর্বোচ্চ ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার দেখা মিলেছে। তবে সম্প্রতি পাওয়া খবর বলছে যে, আগামী দিনে ইউজাররা নিজেদের মুঠোফোনে ২০০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পেতে সক্ষম হবেন। আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, ইতিমধ্যেই চলতি বছরের একদম শুরুতেই লঞ্চ হয়েছে Redmi Note 12 Pro+ 5G, যাতে রয়েছে ২০০ মেগাপিক্সেলের Samsung ISOCELL HPX প্রাইমারি সেন্সর। আবার, Galaxy S23 সিরিজেও ২০০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা থাকতে পারে বলে খবর মিলেছে।

Snapdragon 8 Gen 2 প্রসেসর:

রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২৩ সালে যে সমস্ত ফ্ল্যাগশিপ ফোন লঞ্চ হবে, সেগুলির সবকটিতেই কোয়ালকমের লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ২ চিপসেট থাকবে। এর ফলে ডিভাইসগুলি যে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদান করতে সক্ষম হবে, সেকথা আর আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না।

সাশ্রয়ী মূল্যের ফোনেও পাওয়া যাবে 5G পরিষেবা:

একটা সময় ছিল যখন ইউজাররা মনে করতেন যে, ৫জি স্মার্টফোন কিনতে গেলে বেশ ভালোমতো গাঁটের কড়ি খসাতে হবে। তবে এই আশঙ্কাকে পুরোপুরিভাবে মিথ্যে করে দিয়ে ইতিমধ্যেই এদেশের বাজারে ১০,০০০-১৫,০০০ টাকার মধ্যে একাধিক হ্যান্ডসেট উপলব্ধ হয়ে গিয়েছে, যাতে পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক পরিষেবা অ্যাক্সেস করা যাবে। তদুপরি, সম্প্রতি বেশ কয়েকটি রিপোর্টে বেশ জোর দিয়ে দাবি করা হয়েছে যে, আগামী দিনে ১০,০০০-১২,০০০ টাকার রেঞ্জে একাধিক নামজাদা কোম্পানির ৫জি স্মার্টফোন ভারতীয় মার্কেটে উপলব্ধ হবে।