Xiaomi 14 Ultra: সবচেয়ে সেরা অ্যান্ড্রয়েড ফোন নিয়ে এল শাওমি, সামনে iPhone ফেল

দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হল। শাওমি (Xiaomi) আজ প্রতিশ্রুতিমতো এক লঞ্চ ইভেন্টে Xiaomi Pad 6S Pro ট্যাবের সাথে তাদের সবচেয়ে অত্যাধুনিক ফ্ল্যাগশিপ ফোন, Xiaomi 14 Ultra সামনে এনেছে। এই প্রিমিয়াম গ্রেডের স্মার্টফোনে ডলবি ভিশন যুক্ত ওলেড ডিসপ্লে, Qualcomm Snapdragon 8 Gen 3 প্রসেসর, ১ ইঞ্চি প্রাইমারি সেন্সর সহ চারটে ৫০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, ডুয়াল স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন সিস্টেম, ও ৯০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট রয়েছে। চলুন তাহলে নবাগত Xiaomi 14 Ultra-এর সকল স্পেসিফিকেশন, ফিচার এবং মূল্য সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

Xiaomi 14 Ultra-এর স্পেসিফিকেশন

শাওমি ১৪ আল্ট্রা-তে ৩,২০০ x ১,৪৪০ পিক্সেলের রেজোলিউশন সহ ৬.৭৩ ইঞ্চির ২কে ওলেড টিসিএল সি৮ এলটি পিও ডিসপ্লে রয়েছে, যা ১- ১২০ হার্টজ পর্যন্ত অ্যাডাপ্টিভ রিফ্রেশ রেট, ৩,০০০ নিট পিক ব্রাইটনেস এবং ৫২২ পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি অফার করে। এটি ডলবি ভিশন এবং এইচডিআর ভিভিডের মতো এইচডিআর ফরম্যাট সাপোর্ট করে। এই স্ক্রিনটি ইনস্ট্যান্ট টাচ স্যাম্পেল এবং প্রফেশনাল কালার ক্যালিব্রেশন -এর মতো বৈশিষ্ট্যের সাথে উচ্চ মানের ভিজ্যুয়াল নিশ্চিত করে। এছাড়া, চোখের সুরক্ষার জন্য ডিসপ্লেটি টিউভি রাইনল্যান্ড (TUV Rheinland) দ্বারা সার্টিফায়েড এবং নির্ভরযোগ্যতার জন্য এতে একটি ট্রিপল সার্টিফিকেশন রয়েছে।

Xiaomi 14 Ultra-এ Qualcomm Snapdragon 8 Gen 3 প্রসেসর রয়েছে, যার সাথে আরও ভাল হিট ম্যানেজমেন্টের জন্য ৩x লিকুইড কুলিং চেম্বার যুক্ত রয়েছে। এটি তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট অফার করে – ১২ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ, ১৬ জিবি র‍্যাম + ৫১২ জিবি স্টোরেজ এবং ১৬ জিবি র‍্যাম + ১ টিবি স্টোরেজ। ডিভাইসটি অ্যান্ড্রয়েড ১৪-ভিত্তিক হাইপারওএস (HyperOS) কাস্টম স্কিনে রান করে।

ক্যামেরার ক্ষেত্রে, Xiaomi 14 Ultra-এর কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সিস্টেমে ৫০ মেগাপিক্সেলের Sony LYT-900 ১-ইঞ্চি প্রাইমারি ক্যামেরা সেন্সর রয়েছে, যা অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন (OIS) এবং এফ/১.৬৩ থেকে এফ/৪.০ ইনফিনিটি ভ্যারিয়েবল অ্যাপারচার অফার করে। আর প্রধান ক্যামেরার সাথে, এফ/১.৮ অ্যাপারচার এবং এডিএল আল্ট্রা-লো রিফ্লেকটিভ কোটিং সহ একটি ৫০ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স, এফ/১.৮ অ্যাপারচার, ৩.২X ম্যাগনিফিকেশন, ওআইএস সহ একটি ৫০ মেগাপিক্সেলের পোর্ট্রেট টেলিফোটো লেন্স, একটি ৫০ মেগাপিক্সেলের পেরিস্কোপ টেলিফোটো ক্যামেরা রয়েছে, যা ওআইএস, এফ/২.৫ অ্যাপারচার এবং ৫X ম্যাগনিফিকেশন অফার করে। সেলফির জন্য, ফোনের সামনে একটি ৩২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা বিদ্যমান।

Xiaomi 14 Ultra-এ ৩০X এআই সুপার জুম, ১২০ এফপিএস (প্রধান ক্যামেরা) ফ্রেম রেটে ৪কে ভিডিও রেকর্ডিং এবং সমস্ত ফোকাল লেন্থ জুড়ে ফুল-ফোকাস ৮কে ভিডিও ক্যাপচার করা যাবে। ডিভাইসটি হাই-ফ্রেম-রেট স্লো-মোশন রেকর্ডিংকেও সাপোর্ট করে এবং লাইকা (Leica)-এর সম্পূর্ণ অভিজ্ঞতা এবং কাস্টমাইজেশন অপশম সহ একটি পেশাদার ফটোগ্রাফি স্যুটের সাথে এসেছে।

Xiaomi 14 Ultra-এ কোম্পানির প্রথম ফোন হিসাবে ডুয়েল স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন সাপোর্ট সহ এসেছে। এতে শাওমির নিজস্ব সিগন্যাল এনহ্যান্সমেন্ট চিপ, Surge T1 রয়েছে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, Xiaomi 14 Ultra-এ ৯০ ওয়াট টার্বো ওয়্যার্ড ফাস্ট চার্জিং এবং ৫০ ওয়াট টার্বো ওয়্যারলেস ফাস্ট চার্জিং সহ ৫,৩০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে। আর একটি অতিরিক্ত ক্যামেরা গ্রিপ যুক্ত করা হলে, এটির ক্ষমতা ৬,৮০০ এমএএইচ পর্যন্ত যায়।

Xiaomi 14 Ultra-এর মূল্য এবং লভ্যতা

চীনা বাজারে Xiaomi 14 Ultra ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট কালারে উপলব্ধ। এর সাথে রয়েছে ড্রাগন ক্রিস্টাল ব্লু নামে নীল সিরামিক সংস্করণ, যা পুনরায় চালু করা হয়েছে। ফোনটির প্রি-সেল ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। স্ট্যান্ডার্ড সংস্করণটি ২৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০ টা থেকে চীনে বিক্রি হবে এবং আর ১২ মার্চ সকাল ১০ টা থেকে এর টাইটানিয়াম মেটাল স্পেশাল এডিশনটি পাওয়া যাবে।

Xiaomi 14 Ultra-এর বেস ১২ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ মডেলের দাম রাখা হয়েছে ৬,৪৯৯ ইউয়ান (প্রায় ৭৬,১০০ টাকা)। আর ১৬ জিবি র‍্যাম + ৫১২ জিবি স্টোরেজ, ১৬ জিবি র‍্যাম + ১ টিবি স্টোরেজ এবং ১৬ জিবি র‍্যাম + ১ টিবি স্টোরেজ (টাইটানিয়াম মেটাল এডিশন) ভ্যারিয়েন্টগুলির দাম যথাক্রমে ৬,৯৯৯ ইউয়ান (প্রায় ৮১,৯৫০ টাকা), ৭,৭৯৯ ইউয়ান (প্রায় ৮৯,৯০০ টাকা) এবং ৮,৭৯৯ ইউয়ান (প্রায় ১,০৩,০১৫ টাকা)। ডিভাইসটিকে শাওমির অনলাইন স্টোর, শাওমি হোম, শাওমি ইউপিন, প্রধান অনুমোদিত ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম এবং অনুমোদিত রিটেইলারের কাছ থেকে ১২ মাসের ইন্টারেস্ট-ফ্রি ইনস্টলমেন্টের সুবিধা সহ কেনা যাবে। এই শাওমি ফোনটি আগামী সপ্তাহেই গ্লোবাল মার্কেটে লঞ্চ হতে চলেছে।