HomeMobilesVivo Y200 Pro-র বিপুল জনপ্রিয়তার পর এবার আসছে Vivo Y300 Pro 5G, থাকতে পারে 64MP ক্যামেরা

Vivo Y200 Pro-র বিপুল জনপ্রিয়তার পর এবার আসছে Vivo Y300 Pro 5G, থাকতে পারে 64MP ক্যামেরা

জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড, ভিভো (Vivo) বর্তমানে তাদের মিড-সেগমেন্ট প্রোডাক্ট রেঞ্জকে প্রসারিত করার প্রতি মনোযোগী হয়েছে। ব্র্যান্ডটি গত মাসে Vivo Y200 Pro 5G মডেলটি বাজারে লঞ্চ করেছে এবং লঞ্চের পরপরই এই ফোনটি ক্রেতাদের কাছ থেকে ব্যাপক ইতিবাচক সাড়া পেয়েছে। এর সাফল্য থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে ভিভো বর্তমানে আরও কিছু নতুন ফোনের ওপর কাজ শুরু করেছে, যার মধ্যে রয়েছে লেটেস্ট Y সিরিজের ফোনটির উত্তরসূরিও। আর এখন একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্মে আপকামিং Vivo Y300 Pro 5G হ্যান্ডসেটটিকে স্পট করা গেছে। কি কি তথ্য জানা গেছে এই ফোনটির সর্ম্পকে, আসুন দেখে নেওয়া যাক।

Vivo Y300 Pro 5G ফোনটি শীঘ্রই আসতে পারে বাজারে

ভিভো ওয়াই৩০০ প্রো ৫জি ফোনটিকে V2402 মডেল নম্বর সহ দেখা গেছে। বর্তমান প্রজন্মের ভিভো ওয়াই২০০ প্রো ৫জি ফোনের মডেল নম্বর ছিল V2401। আসন্ন ওয়াই সিরিজের হ্যান্ডসেটটির স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে এখনও সেভাবে কোনও তথ্য সামনে আসনি। কোম্পানি কবে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ডিভাইসটি লঞ্চ করবে বা এর বৈশিষ্ট্যগুলি কেমন হবে, সে সম্পর্কে সঠিক কোনও তথ্য উপলব্ধ নেই। তবে, ভিভোর আগের মডেল এবং বাজারে প্রবণতা দেখে কিছু অনুমান করা হচ্ছে।

সম্ভবত, ভিভো ওয়াই৩০০ প্রো ৫জি পূর্ববর্তী মডেলগুলির মতো একটি মিড-রেঞ্জ স্মার্টফোন হবে। সাম্প্রতিক ভিভো ওয়াই২০০ প্রো ৫জি ফোনে যে সমস্ত বৈশিষ্ট্যগুলি অত্যন্ত প্রশংসিত হয়েছে, সেগুলিকে ভিভো ওয়াই২০০ প্রো ৫জি হ্যান্ডসেটেও দেখা যেতে যেতে পারে। ভিভো ওয়াও২০০ প্রো ৫জি মডেলে হাই কালার স্যাচুরেশন সহ ৬.৭৮ ইঞ্চির ফুলএইচডি+ রেজোলিউশনের অ্যামোলেড (AMOLED) ডিসপ্লে রয়েছে, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করে।

Vivo Y200 Pro 5G ফোনটি Qualcomm Snapdragon 695 5G চিপসেটে চলে। ফটোগ্রাফির জন্য, ফোনের রিয়ার ক্যামেরা প্যানেলে ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরার সাথে একটি ২ মেগাপিক্সেলের ডেপ্থ ক্যামেরা রয়েছে। আর এর সামনে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা অবস্থান করছে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, Vivo Y200 Pro 5G ফোনে বিশাল ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে, যা ৪৪ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। ডিভাইসটি লেটেস্ট অ্যান্ড্রয়েড ১৪ ভিত্তিক ফানটাচওএস ১৪ (FunTouchOS 14) কাস্টম স্কিনে চলে।

যদিও, কোম্পানির তরফে Vivo Y300 Pro 5G ফোনের অফিসিয়াল লঞ্চের তারিখ এখনও ঘোষণা করা হয়নি, তবে শীঘ্রই আরও তথ্য অনলাইনে প্রকাশিত হতে পারে। আপাতত অনুমান করা হচ্ছে যে, এই মডেলটি মিড-সেগমেন্ট স্মার্টফোনের বাজারে একটি আকর্ষনীয় বিকল্প হয়ে উঠতে পারে। ভিভো এই নতুন স্মার্টফোনের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের কী কী অত্যাধুনিক ফিচার অফার করতে পারে, সেটাই এখন দেখার।

RELATED ARTICLES

আরও পড়ুন