বাড়ছে সমুদ্রের জলতলের উচ্চতা, ২০২১ সালে ক্ষতিগ্রস্থ হবে উপকূলবর্তী অঞ্চল

সম্প্রতি কয়েক দশকের মধ্যে সমুদ্রের জলতলের উচ্চতা ক্রমাগত বৃদ্ধি পেতে থাকায় সমুদ্রতীরবর্তী শহরগুলি বিপুলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এমনই একটি তথ্য উঠে এলো একটি রিপোর্টে। একজন রিসার্চারের দাবি, এই সময় সমুদ্রতলদেশের উচ্চতা বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য সম্পূর্ণরূপে দায়ী মানুষের ক্রিয়া-কলাপ, পৃথিবীর কক্ষপথের কোনরূপ ভূমিকা এক্ষেত্রে নেই।

রিসার্চাররা আরো বেশি হতচকিত হয়েছেন দেখে যে, বিগত ৬৬ মিলিয়ন বছর ধরে যখন পৃথিবীতে বরফ ছিলনা, তখনকার কার্বন ডাই অক্সাইডের মাত্রা বৃদ্ধির পরিমাণ এখনকার থেকে অনেক কম।

একটি জার্নালের প্রমুখ লেখক, এবং রাটজারস ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক কেনিথ জি মিলার জানিয়েছেন, “আমাদের দলের রিসার্চ থেকে আমরা জানতে পেরেছি যে, পৃথিবীর বরফাবৃত হওয়ার ইতিহাস আমাদের অনুমানের থেকেও জটিল। “

মিলার আরও যোগ করেন, “বরফ মুক্ত পরিবেশে কার্বন ডাই অক্সাইড লেভেলের একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকলেও, পূর্বে বরফের পরিমাণ এবং সমুদ্র জলতলের পরিমাণ কম-বেশি হওয়ার জন্য পৃথিবীর কক্ষপথ সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি বেশ কিছুটা পাল্টেছে। “

এরকম ভাবেই সমুদ্রতলের উচ্চতা বাড়তে থাকলে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে উপকূল অঞ্চলের এলাকা এবং নিচু এলাকাগুলি প্রবল ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। যার ফলে ইকোসিস্টেম এবং অর্থনৈতিক উভয় ক্ষেত্রেই সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে।

মিলার আরো জানান, ” যদিও পরিবেশের কার্বন-ডাই-অক্সাইড জলতল বৃদ্ধি করে তবুও বর্তমানে জলতল বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সবথেকে বেশি দায়ী মানুষের ক্রিয়া-কলাপ। পৃথিবীর কক্ষপথের পরিবর্তন এবং সূর্য থেকে দূরত্ব এখন বেশ কিছুটা গৌণ ভূমিকা পালন করে।”