WhatsApp এর মাধ্যমেই বাড়ির পাশের দোকান থেকে হবে কেনাকাটা, আসছে নতুন ফিচার

WhatsApp-এর এই নতুন ফিচারটি ছোটো-বড়ো ব্যবসাগুলিকে আরও ফুলেফেঁপে উঠতে সহায়তা করবে

whatsapp-testing-new-feature-to-search-for-businesses-stores-within-the-app

এখনকার দিনে স্মার্টফোনে অন্য কোনো অ্যাপ্লিকেশন থাক বা না থাক, কিন্তু WhatsApp থাকাটা যেন এককথায় বাধ্যতামূলক হয়ে উঠেছে। কাজের প্রয়োজনে বা নিতান্ত ঘরোয়া চ্যাটের জন্য এই ইন্সট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্মটি আমাদের কাছে একটি বাই-ডিফল্ট মেসেজিং অ্যাপ হয়ে উঠেছে। ইউজারদের সুবিধার্থে প্রায়শই এই অ্যাপে নিত্যনতুন ফিচার যুক্ত হয়। সেই রীতি বজায় রেখে সংস্থাটি এবার তাদের প্ল্যাটফর্মে একটি নতুন ফিচার যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। WhatsApp-এর এই নতুন ফিচারটি ছোটো-বড়ো ব্যবসাগুলিকে আরও ফুলেফেঁপে উঠতে সহায়তা করবে।

Facebook-এর মালিকানাধীন মেসেজিং অ্যাপটি এখন অ্যাপের মধ্যে একটি নির্দিষ্ট পণ্য প্রদানকারী ব্যবসা বা স্টোরগুলি সন্ধান করার উপায় রোলআউট করতে চলেছে। এই ফিচারটি বর্তমানে ব্রাজিলের সাও পাওলোতে টেস্ট করা হচ্ছে। এটি নিজেদের প্ল্যাটফর্মে ই-কমার্স পরিষেবাগুলিকে শক্তিশালী করার জন্য সংস্থা কর্তৃক গৃহীত নতুন পদক্ষেপ।

এই ফিচারটির কথা ঘোষণা করে WhatsApp-এর প্রধান উইল ক্যাথকার্ট (Will Cathcart) টুইটারে পোস্ট করেছেন যে, “আমি উচ্ছ্বসিত যে আমরা WhatsApp-এর মধ্যে একটি স্থানীয় ব্যবসায়িক ডিরেক্টরি পাইলট করতে শুরু করেছি। এটি আপনাকে আপনার আশেপাশের কফি শপ, ফুলওয়ালা, পোশাকের দোকান, এবং অন্যান্য একাধিক স্থানীয় ব্যবসাগুলি খুঁজে পেতে এবং তাদের সাথে যোগাযোগ করতে সহায়তা করবে।”

Facebook-এর বিজনেস মেসেজিং-এর ভাইস প্রেসিডেন্ট ম্যাট ইদেমা (Matt Idema) রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “হোয়াটসঅ্যাপে একটি বাণিজ্যিক প্রক্রিয়াকরণ শুরু করার ক্ষেত্রে এটি একটি প্রাথমিক উপায় হতে পারে। ফেসবুক এর আগে ছোটো আকারের ব্যবসাগুলির উন্নতিসাধনে সহায়তা করার জন্য Facebook Shop ফিচার চালু করেছিল। কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ছোটোখাটো ব্যবসাগুলি যাতে তাদের দুঃসময় কাটিয়ে উঠে পুনরায় বিকশিত হতে পারে, সেদিকে লক্ষ্য রেখেই মূলত এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল।”

Reuters-এর রিপোর্ট অনুসারে, হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে যে আপাতত এই ফিচারটি ব্রাজিলের সাও পাওলোতে পরীক্ষাধীন থাকলেও, ধীরে ধীরে পৃথিবীর অন্যান্য দেশেও এটিকে উপলব্ধ করা হবে। ইদেমা নিশ্চিত করেছেন যে, ফিচারটি টেস্ট করার প্রক্রিয়াটি ভারত এবং ইন্দোনেশিয়ার মতো দেশে সম্প্রসারিত করা যেতে পারে। এই সকল দেশগুলিতে WhatsApp-এর ব্যাপক ইউজারবেস থাকার জন্যই এই সিদ্ধান্ত ভবিষ্যতে নেওয়া হতে পারে বলে ইদেমা জানিয়েছেন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।