করোনা ভাইরাসের উপর গবেষণা করা সুপার কম্পিউটার হ্যাক করার চেষ্টা করলো হ্যাকাররা

করোনা ভাইরাসের কারণে সারাবিশ্ব আতংকিত। সব দেশ চেষ্টা করছে যেভাবেই হোক এই মহামারীকে আটকাতে এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভ্যাকসিন তৈরী করতে। তবে এসবের মধ্যেও সক্রিয় হয়ে উঠেছে হ্যাকাররা। নতুন একটি রিপোর্টে জানা গেছে, ইউরোপের সুপার কম্পিউটারগুলিকে বন্ধ করতে হয়েছিল, কারণ হ্যাকাররা একটি ম্যালওয়ারের মাধ্যমে ক্রিপ্টোকারেন্সির খনির জন্য কম্পিউটিং পাওয়ার হাইজ্যাক করার চেষ্টা করেছিল। হ্যাকারদের দ্বারা সুপার কম্পিউটার হাইজ্যাক করার চেষ্টার কারণে কোভিড -১৯ গবেষণাও বন্ধ করতে হয়েছে।

ZDNet এর রিপোর্ট অনুসারে, ব্রিটেন, জার্মানি এবং সুইজারল্যান্ডের সুপার কম্পিউটার এবং স্পেনের হাই পারফরম্যান্সের কম্পিউটারগুলিকে ম্যালওয়্যার দ্বারা একইভাবে হ্যাক করার চেষ্টা করা হয়েছিল। রিপোর্টে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে বিভিন্ন সময়ে কম্পিউটারের অ্যাক্সেস নেওয়ার চেষ্টা করেছিল হ্যাকাররা।

ক্যাডো সিকিউরিটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সুরক্ষা গবেষক ক্রিস ডোমান ZDNet কে বলেছেন যে, ম্যালওয়্যারটিকে সুপার কম্পিউটারের পাওয়ার ব্যবহার করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছিল, যাতে Monero XMR ক্রিপ্টোকারেন্সিতে প্রবেশ করা যায়। ZDNet এর প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, বেশ কয়েকটি সুপার কম্পিউটারকে এই কারণে বন্ধ করে দিতে হয়েছিল। এই সুপার কম্পিউটারগুলি কোভিড -১৯-এর উপর গবেষণা চালানোর জন্যও ব্যবহৃত হচ্ছিল। গবেষকরা, বিশেষত কার্যকর টিকা তৈরির জন্য এই কম্পিউটারগুলি ব্যবহার করছিলেন।

খবর অনুযায়ী, হ্যাকাররা সেই সমস্ত লোকেদের থেকে SSH ইউজারনেম পাসওয়ার্ড চুরি করে এই কম্পিউটারের অ্যাক্সেস নিয়েছে যাদের কাছে এই কম্পিউটার চালানোর অনুমোদন ছিল। এই ক্রেডেনশিয়াল কানাডা, পোল্যান্ড এবং চীনের লোকদের কাছে ছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী, এটি শুধু প্রথমবার নয় ক্রিপ্টোকারেন্সি খননের চেষ্টা করার জন্য সুপার কম্পিউটারে ম্যালওয়্যার লোড করা হয়েছিল। এটি হ্যাকারদের প্রথম সফলতাও।

WhatsApp এ সব খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন।