Facebook কে টেক্কা দিতে Hike নিয়ে আসছে স্বদেশী Vibe

kavin-bharti-mittal-will-brings-vibe-to-take-on-facebook.jpg

অনলাইন মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে একদা জনপ্রিয় হাইক (Hike) অ্যাপ্লিকেশনের কথা হয়তো অনেকেরই মনে আছে। মাত্র চার বছর আগেও কাভিন ভারতী মিত্তলের মালিকানাধীন হাইক মেসেঞ্জার ব্যবহারকারীর সংখ্যা নেহাত কম ছিলনা। তবে হোয়াটসঅ্যাপের (Whatsapp) একচ্ছত্র আধিপত্যের কারণেই হাইক ধীরে ধীরে তার জমি হারাতে থাকে। একাধিক প্রতিবন্ধকতার সাথে লড়াই চালিয়েও শেষরক্ষা অবশ্য হয়নি। গত মাসে অ্যাপ্লিকেশনটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। যদিও হাইকের প্রস্তুতকারকেরা এত সহজে হার স্বীকার করতে রাজি নন। সম্প্রতি তারা ফেসবুকের (Facebook) মতো একটি নতুন চিত্তাকর্ষক সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্ম নির্মাণের ব্যাপারে মনোযোগী হয়েছেন। ‘ভাইব’ (Vibe) নামের এই সামাজিক মাধ্যম ছাড়াও তারা একটি গেমিং অ্যাপ্লিকেশন নির্মাণ করছেন যা ‘রাশ’ (Rush) নামে প্রকাশ্যে আসবে বলে জানা গিয়েছে।

ভারতী এয়ারটেল লিমিটেডের চেয়ারম্যান সুনীল মিত্তলের সুযোগ্য পুত্র ৩৩ বছর বয়সী কাভিন ভারতী মিত্তল প্রযুক্তির জগতে একটি পরিচিত নাম। তাদের নতুন অ্যাপ্লিকেশন দুটির কথা তিনি নিজের মুখেই স্বীকার করেছেন। তবে এবিষয়ে এখনই বেশী কিছু বলতে তিনি নারাজ। কিন্তু নয়া অ্যাপ্লিকেশন দুটির জন্য হাইক যে ইতিমধ্যেই বিনিয়োগকারীদের দরজায় উপস্থিত হয়েছে, তার ইঙ্গিত দিতে তিনি ভোলেননি।

আসলে নিজের টেকনোলজি স্টার্ট-আপটিকে পুনরুজ্জীবিত করতেই কাভিন ভারতী মিত্তলের এই উদ্যোগ বলে বিশেষজ্ঞেরা মনে করছেন। এর আগেও যে তারা এই চেষ্টা করেননি, তা নয়। সেক্ষেত্রে তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হয়নি। তবে তাদের এবারকার উদ্যোগ যে সফল হবে, সেই বিষয়ে Hike নির্মাতারা অনেকটাই নিশ্চিত। এর ফলে তাদের সংস্থার আয় আরো বাড়বে বলেই কর্তৃপক্ষের বিশ্বাস।

নতুন অ্যাপ্লিকেশনদ্বয়ের ব্যাপারে বলতে গেলে প্রথমেই Vibe অ্যাপটির কথা উল্লেখ করতে হয়। এটি একটি অনুমতি-সাপেক্ষ সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট, যার মাধ্যমে ইউজাররা অনলাইনে বহুসংখ্যক মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করতে পারবেন। এতে ভুয়ো প্রোফাইলের পরিমাণ অনেক কম থাকবে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এছাড়া ভারতের ক্রমবর্ধমান গেমিং ইন্ডাস্ট্রির দিকে তাকিয়ে Hike নির্মাতারা Rush নামের একটি গেমিং অ্যাপ্লিকেশনের উপরে কাজ করছেন। গত ডিসেম্বর মাসে এই বাইট-সাইজড (Bite-Sized) অনলাইন গেমিং প্ল্যাটফর্মটি সর্বপ্রথম প্রকাশ্যে আসে। এতদিন বিভিন্ন অগ্রগণ্য মল এবং বিনোদনমূলক পার্কের কয়েন দ্বারা পরিচালিত গেমিং মেশিনের মাধ্যমে এই প্ল্যাটফর্মটি অ্যাক্সেস করা যেতো। তবে আগামীদিনে Rush প্ল্যাটফর্মটিকে আরো বেশী সংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হাইক কর্তৃপক্ষ বদ্ধপরিকর।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন